৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সন্দীপ্তা ভঞ্জ: মাস খানেক ধরেই দাগ ক্রিয়েটিভ মিডিয়া ও আর্টিস্ট ফোরামের মধ্যে চলছে চাপানউতোর। যা নিয়ে সরগরম টেলিপাড়া। বকেয়া পারিশ্রমিক না পাওয়ায় রুষ্ট একাধিক শিল্পীরা। গত শনিবার অর্থাৎ ২৫ মে এক জরুরি সাংবাদিক বৈঠক ডাকা হয় শিল্পীদের সংগঠন আর্টিস্ট ফোরামের তরফে। যেখানে দাগ ক্রিয়েটিভ মিডিয়ার কর্ণধার রানা সরকারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন টেলিজগতের একাধিক শিল্পী এবং কলাকুশলীদের একাংশ। সেই বৈঠকেই উঠে এসেছে একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য। সমূহ অভিযোগের তীর প্রযোজক রানা সরকারের দিকেই। বকেয়া পারিশ্রমিকের জন্য সংশ্লিষ্ট চ্যানেলগুলিতে দাগ ক্রিয়েটিভ মিডিয়া-র তরফে একটি নো অবজেকশন সার্টিফিকেট জমা দেওয়ার প্রসঙ্গ তোলা হয়েছিল। অবশেষে এনওসি দিতে রাজি হয়েছেন প্রযোজক রানা সরকার। তিন দিনের মধ্যেই এনওসি জমা দেবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন:   টাকা পাচ্ছেন না শিল্পীরা, আন্দোলনের ইঙ্গিত আর্টিস্ট ফোরামের]

গতকাল দুপুর নাগাদ ই-মেল মারফৎ আর্টিস্ট ফোরামকে রানা জানিয়েছেন যে আগামী তিন দিনের মধ্যেই তিনি এনওসি জমা দেবেন। একটা এনওসিতে যদি সমস্ত সমস্যার সমাধান হয়, তাহলে কখনওই এনওসি দিতে বাধা নেই তাঁর, এমনটাই জানিয়েছেন রানা। পাশাপাশি এও স্পষ্ট করে দিয়েছেন যে, বকেয়া পারিশ্রমিক মেটানোর দায়িত্ব কিন্তু নিতে হবে চ্যানেলগুলোকেই। এমনকী, ই-মেলের বয়ানে স্পষ্ট করে শিল্পীদের বকেয়া টাকা মেটানোর দেরির জন্য তিনি আঙুল তুলেছেন সংশ্লিষ্ট চ্যানেলগুলোর দিকে-ই।

রানা সরকারের এই মেলের জবাবে আর্টিস্ট ফোরাম তাদের বক্তব্যও জানিয়েছে। ই-মেল মারফত তাঁকে জানানো হয়, দাগ ক্রিয়েটিভ মিডিয়ার পক্ষ থেকে এই এনওসি সংশ্লিষ্ট চ্যানেলগুলোতে পাঠালেই সরাসরি শিল্পী এবং কলা-কুশলীদের বকেয়া টাকা মিটিয়ে দেবে চ্যানেল, এমনটাই আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল ওই প্রযোজনা সংস্থার তরফে। কিন্তু, এনওসি-টা দেবেন কে?- তা নিয়ে ঘোর জটিলতার সৃষ্টি হয়েছিল। কারণ আর্টিস্ট ফোরামের দাবি, নিয়মানুযায়ী খাতায়-কলমে দাগ ক্রিয়েটিভ মিডিয়া-র সর্বেসর্বা তথা নির্দেশক অরিন্দম পাল এবং অদিতি রায়। সেখানে রানা সরকারের কোনও নাম নেই। তাই এঁরা এনওসি দিয়ে দিলেই সব সমস্যা মিটে যায়। অন্যদিকে, অদিতি রায় ও অরিন্দম পাল দাগ ক্রিয়েটিভ মিডিয়া থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। তবে, গতকাল রানা স্পষ্ট করে জানান যে কোম্পানির যাবতীয় নথিপত্রে তাঁর নাম-ই রয়েছে। এমনকী, চ্যানেলগুলোর সঙ্গে যাবতীয় চুক্তিপত্রে সই রয়েছে তাঁর। তাই তাঁর সই করা এনওসি নিয়ে যে কোনও সমস্যাই হবে না, তা নিশ্চিত করেন রানা।

[আরও পড়ুন:   টাকা পাচ্ছেন না শিল্পীরা, আন্দোলনের ইঙ্গিত আর্টিস্ট ফোরামের]

তবে এনওসি দেওয়ার আগে তিনি বকেয়া পেমেন্টের তালিকাটি আরও একবার খতিয়ে দেখতে চান। কারণ, তাঁর মনে হয়েছে বেশ কিছু শিল্পী তাঁদের প্রাপ্য টাকার পরিমাণ বাড়িয়ে লিখেছেন। রানা সরকারের এনওসি জমা পড়লে এবার সংশ্লিষ্ট তিনটি চ্যানেল অর্থাৎ স্টার জলসা, জি বাংলা ও কালারস বাংলার তরফে বকেয়া টাকা মেটানোর প্রক্রিয়া শুরু করা হবে বলেই আশা করছে টালিগঞ্জের আর্টিস্ট ফোরাম।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং