১ আশ্বিন  ১৪২৫  মঙ্গলবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  |  পুজোর বাকি আর ২৮ দিন

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যোধপুর আদালতে তিনি যখন রাত কাটাচ্ছিলেন তখন মাথায় হাত পড়েছিল প্রযোজকদের। আশঙ্কার প্রহর গুণছিলেন তাঁর অনুগামীরা। এত কোট কোটি টাকা লগ্নি কি জলে যাবে? সে মেঘ অবশ্য কেটেছে। কিন্তু প্রশ্নগুলো ফিরে ফিরেই আসে। সম্প্রতি ‘রেস থ্রি’ ছবির ট্রেলার লঞ্চে এসেও এ প্রশ্নের মুখোমুখি হলেন সলমন খান। আর তাতে তাঁর উত্তর, কী ভেবেছিলেন, আমি আজীবন জেলেই থাকব!

[  ‘রেস’-এর ময়দানে এবার নয়া সিকান্দার সলমন, ট্রেলারেই নজর কাড়লেন ভাইজান ]

রেমো ডি’স্যুজার এ ছবি ঘিরে উন্মাদনা তুঙ্গে। মাঝে সলমনের জেল ও আইনি জটিলতা ঘিরে খানিকটা সংশয় দেখা দিয়েছিল। তবে জট কেটেছে। বলিপাড়ায় ‘দাবাং খান’ ফিরেছেন স্বমহিমায়। এ ছবির বড় চমক বোধহয় ববি দেওল। পুরনো বন্ধুকে বহুদিন পর ডাক পাঠিয়েছেন সলমন। ফলে অনেকদিন পর আবার প্রচারের আলোয় তিনি। সাম্প্রতিক অতীতে কোনও ছবির জন্য এত প্রচার বোধহয় ববি দেওলের কপালে জোটেনি। তবে আশেপাশে যিনিই থাকুন না কেন, মধ্যমণি তো সলমন নিজেই। ট্রেলার লঞ্চের অনুষ্ঠানে তাই সকলের মাঝখানেই বসে ছিলেন সুপারস্টার। এমন সময় উলটো দিক থেকে ভেসে এল প্রশ্ন। আগেই বলে দেওয়া হয়েছিল, যোধপুর বা কর্ণাটক নিয়ে কোনও প্রশ্ন নয়। কিন্তু এক সাংবাদিক জিজ্ঞেস করেই ফেললেন। তাঁর প্রশ্ন, এই যে এত লগ্নির ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল, সেই ভেবে তাঁর চিন্তা হয়নি? সঙ্গে সঙ্গে সলমনের সহাস্য জবাব, ‘আপনি কী ভেবেছিলেন, আমি চিরকালের জন্য জেলে থাকব?’ শুনে সঙ্গে সঙ্গে না বলেন ওই সাংবাদিক। তাঁকে ধন্যবাদ জানান সলমন। আর হাসির রোল ওঠে সভায়।

[  ‘কান’-এর রেড কার্পেটে পাক অভিনেত্রীকে চুম্বন সোনমের, ভাইরাল ছবি ]

হাসি-ঠাট্টায় প্রসঙ্গ তো মিটে গিয়েছে। ‘রেস থ্রি’-র ট্রেলার লঞ্চও হয়ে গিয়েছে। ছবি ঘিরে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন দর্শকরা। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে অন্য জায়গায়। তবে কি সলমন জানতেন যে, আইনের বেড়া তাঁকে বেশিদিন আটকে রাখতে পারবে না? নইলে এত আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে এ কথা তিনি বললেন কী করে? গ্ল্যামার ঝকঝকে অনুষ্ঠানের মধ্যে প্রশ্নের কাঁটা কিন্তু বিঁধেই থাকল।

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং