×

৩ চৈত্র  ১৪২৫  মঙ্গলবার ১৯ মার্চ ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৩ চৈত্র  ১৪২৫  মঙ্গলবার ১৯ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

বিক্রম রায়, কোচবিহার: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নের প্রকল্প কন্যাশ্রীতে কোচবিহার জেলা আগেই প্রথম স্থানে রয়েছে। এবার জেলার কন্যাশ্রীদের মাছ চাষের মধ্য দিয়ে স্বনির্ভর করে তুলতে উদ্যোগী হয়েছে জেলা প্রশাসন। পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে কোচবিহার উচ্চবালিকা বিদ্যালয় ৩৪ জন ছাত্রীদের রঙিন মাছ চাষের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। সাফল্য পেলে আগামী দিনে জেলার অন্যান্য স্কুলেও এই ধরনের প্রশিক্ষণ শিবিরে ভাবনা প্রশাসনের।

[বর্ষায় মাছের রোগ সারাতে ব্যবহার করুন প্রচুর পরিমাণ চুন]

প্রশিক্ষণ শিবিরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর জেলাশাসক কৌশিক সাহা জানান, কন্যাশ্রীদের স্বনির্ভর করার লক্ষ্যে তাদের মাছের চাষ করার প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। প্রথমেই পাবদা, কইয়ের মতো মাছ চাষ করতে দিলে ছাত্রীদের আগ্রহ হয় তো থাকবে না। তাই তাদের রঙিন মাছ চাষের পদ্ধতি শেখানো হয়েছে। রঙিন মাছের ভাল বাজার রয়েছে। তবে পরে এই ছাত্রীরা যাতে বাণিজ্যিকভাবে মাছের চাষের প্রতি আগ্রহ দেখান সেটাই মূল উদ্দেশ্য।

[নদীর ঠিকানা ছেড়ে এবার পুকুরে সংসার পাতার উপাখ্যান বোরলির]

[‘গিফট তেলাপিয়া’ চাষে উৎসাহ বাড়ছে হলদিয়ার মৎস্যচাষিদের]

অনুষ্ঠানে জেলা মৎস্য দপ্তরের সহকারী অধিকর্তা অলোকনাথ প্রহরাজ জানান, বাড়িতে সামান্য অ্যাকোয়ারিয়াম বা ছাদের উপর সহজেই মাছের চাষ করা যেতে পারে৷ মাছ চাষের প্রতি ছাত্রীদের আগ্রহ বাড়াতে একদিনের প্রশিক্ষণ শিবিরে ব্যবস্থা করা হয়েছে। মাছ কীভাবে রাখা হবে এবং কী ধরনের খাবার দিতে হবে, তা  হাতে কলমে শেখানো হয়েছে ছাত্রীদের। গোল্ড ফিস, অ্যাঞ্জেল ফিস, গৌরামি ফিস-সহ অন্যান্য রঙ্গিন মাছ তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল। ‌

[বিকল্প হিসাবে পাঙ্গাস মাছ চাষে গুরুত্ব হলদিয়ার মৎস্যচাষীদের]

প্রথমবার মাছগুলি দেখতে পেয়ে উচ্ছ্বসিত ছাত্রীরা। মাছ চাষে আগ্রহ প্রকাশ করেন ছাত্রীরা৷ এই ধরনের অভিনব উদ্যোগের মধ্য দিয়ে কন্যাশ্রীদের স্বাবলম্বী করে তোলার প্রচেষ্টাকে স্বাগত জানিয়েছে ছাত্রীদের অভিভাবকরাও।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং