BREAKING NEWS

১৯  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৫ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রদেশ সভাপতির নির্দেশ অমান্য করে ত্রিপুরায় আদি বিজেপির মিছিল, উপস্থিত ২ মন্ত্রীও

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 23, 2022 7:28 pm|    Updated: February 23, 2022 8:06 pm

2 minister presents in rally of Rebel BJP leaders at Tripura | Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলার পর ত্রিপুরা (Tripura)। উত্তর-পূর্বের পাহাড়ি রাজ্যেও বিক্ষুব্ধ কাঁটায় বিদ্ধ পদ্মশিবির। প্রকাশ্যে আদি-নব্য দ্বন্দ্ব। প্রদেশ সভাপতির নির্দেশ অমান্য করে আদি বিজেপির মিছিল হল আগরতলায়। সেই মিছিলেই হাঁটলেন ত্রিপুরার উপমুখ্যমন্ত্রী এবং কারামন্ত্রী। যা ঘিরে তুমুল চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

ত্রিপুরায় তুঙ্গে আদি বনাম নব্য বিজেপির লড়াই। আড়াআড়িভাবে আদি এবং নব্য নেতারা দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে। প্রদেশ বিজেপির সভাপতির নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পার্টির আরেকটি গোষ্ঠীর মিছিলের আয়োজন করেছিল। সেখানে দেখা গেল উপমুখ্যমন্ত্রী জিষ্ণু দেববর্মা ও কারামন্ত্রী রামপ্রসাদ পালকে।

[আরও পড়ুন: ফের ভাইরাল উত্তরপ্রদেশের মহিলা পোলিং অফিসার! তাঁর এই ইনস্টাগ্রাম পোস্টগুলি দেখেছেন?]

বুধবার শহরে মিছিলের আয়োজন করে আদি বিজেপি। এই মিছিলে প্রদেশ বিজেপির কার্যত কোনও অনুমোদন ছিল না। প্রদেশ বিজেপির মুখপাত্র নবেন্দু ভট্টাচার্য বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, বুধবারের মিছিলের কোনও অনুমোদন নেই। এই মিছিলকে ভুয়ো বলে আখ্যা দিয়েছেন দলের মুখপাত্র। এই মিছিলের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করে দিয়েছিলেন প্রদেশ বিজেপি সভাপতি ডা. মানিক সাহা। কিন্তু এই মিছিলে বুধবার হাঁটেন উপ-মুখ্যমন্ত্রী জিষ্ণু দেববর্মা এবং কারামন্ত্রী রামপ্রসাদ পাল। ছিলেন বিজেপির কর্মীসমর্থকরা।

পার্টির নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কীভাবে মিছিল হল এনিয়ে কোন ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি দলের পক্ষ থেকে। সুদীপ বর্মন, আশিস সাহারা পার্টি ছাড়ার পর এবার প্রকাশ্যে আদি বনাম নব্যের লড়াই। রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই লড়াইয়ে পার্টির কর্মীসমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। সামনেই চার বিধানসভা আসনের উপ-নির্বাচন। আর এক বছর পরেই বিধানসভা নির্বাচন। এরকম অবস্থায় পার্টির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে চলে আসায় ক্ষুব্ধ হাইকম্যান্ডও।

[আরও পড়ুন: সিবিএসই-সহ সব কেন্দ্রীয় বোর্ডের পরীক্ষা হবে অফলাইনেই, জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট]

প্রসঙ্গত, ত্রিপুরার প্রদেশ বিজেপি সভাপতি ডা. মানিক সাহার অপসারণ চেয়েছে আদি বিজেপি নেতারা। তাঁরা চিঠিও দিয়েছেন প্রদেশ বিজেপি সভাপতিকে। তাঁকে পদ ছাড়তে বলা হয়েছে। তিন পাতার চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন আদি বিজেপি নেতারা। তাঁদের অভিযোগ, রাজ্য বিজেপিকে শক্তিশালী করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ বর্তমান সভাপতি। বিগত এডিসি নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে বিজেপি। মানিক সাহার নেতৃত্বে আগামিদিনে বিজেপি ক্ষমতায় আসবে কিনা তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেন আদি নেতারা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে