১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

লাদাখে চিনা বাহিনীর হামলায় শহিদ অন্তত ২০ ভারতীয় জওয়ান

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 16, 2020 10:06 pm|    Updated: June 16, 2020 10:47 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গালওয়ান উপত্যকায় চিনা ফৌজের হামলা শহিদ অন্তত ২০জন ভারতীয় জওয়ান। সেই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে খবর। এদিকে, ভারতীয় ফৌজের পালটা হামলায় খতম হয়েছে ৪৩ জন চিনা সৈনিক। বিবৃতি জারি করে এমনটাই জানিয়েছে সেনা।  

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, সোমবার রাতে ভারতীয় বাহিনীর উপর হামলা চালায় লাল ফৌজ। পালটা জবাব দেয় ভারতীয় সেনা। সেই সংঘর্ষে অন্তত বিশ জন জওয়ান প্রাণ হারিয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন অনেকেই, ফলে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য। গালওয়ান উপত্যকায় চিনা আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দিল ভারত। মঙ্গলবার বিবৃতি জারি করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (LAC) শান্তি ফেরানোর জন্য সামরিক এবং কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা চালাচ্ছে দুই দেশ।

সোমবার লাদাখে চিনা ফৌজের হামলায় শহিদ হয়েছেন তিন ভারতীয় জওয়ান। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা সংলগ্ন ভারতীয় এলাকার মধ্যে তাঁবু খাটিয়েছিল চিনের সেনাবাহিনী৷ সেই তাঁবু সরানো নিয়ে তৈরি হওয়া উত্তেজনা থেকেই সোমবার দু’ পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। সূত্রের খবর, দুই ফৌজের মধ্যে সংঘর্ষে কোনও আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার হয়নি৷ সরকারি সূত্রের দাবি, ভারতীয় বাহিনী ১৪ নম্বর পেট্রোলিং পয়েন্টের কাছে ওই তাঁবু সরানোর কথা বলতে যেতেই চিনা বাহিনী উঁচু জায়গা থেকে ভারতীয়দের উপরে পাথর বৃষ্টি শুরু করে৷ এর পরে লোহার রড এবং লাঠি নিয়ে হামলা চালায় তাঁরা৷ এরপরই দু’ পক্ষের মধ্যে প্রবল সংঘর্ষ শুরু হয়৷ ফলে ক্রমেই বাড়ছে যুদ্ধের আশঙ্কা। এহেন টালমাটাল সময়ে মঙ্গলবার গোটা পরিস্থিতি পর্যালোচনায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে জরুরি বৈঠক সারলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। এর আগে তিন বাহিনীর প্রধান ও সিডিএস বিপিন রওয়াতের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: ৪৫ বছর আগে শেষবার গুলি চলে চিন সীমান্তে, জানুন কী হয়েছিল সেদিন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement