BREAKING NEWS

৮ শ্রাবণ  ১৪২৮  রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কেন্দ্র ও রাজ্যের চাপের ফল! ত্রিপুরা থেকে অপহৃত ৩ শ্রমিককে মুক্তি দিল জঙ্গিরা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: December 24, 2020 7:45 pm|    Updated: December 24, 2020 7:45 pm

3 men kidnapped by militants in Tripura freed after 2 weeks। Sangbad Pratidin

প্রতীকী ছবি।

প্রণব সরকার, আগরতলা: বিভিন্ন নিরাপত্তা সংস্থা ও পুলিশকর্মীদের লাগাতার অভিযানের জের। অবশেষে তিন অপহৃত শ্রমিককে মুক্তি দিল জঙ্গি সংগঠন ন্যাশনাল ফ্রন্ট অফ ত্রিপুরা। যদিও কেউ কেউ বলছেন, রীতিমতো মুক্তিপণ দিয়েই ওই শ্রমিকদের ছাড়িয়ে এনেছেন তাঁদের পরিবারের সদস্যরা। যদিও এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি তাঁরা। যদিও প্রশাসনের দাবি, রাজ্যের ইতিহাসে এই প্রথম কোন মুক্তিপণ ছাড়াই মুক্তি পেয়েছেন অপহৃতরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ৭ ডিসেম্বর ভারত-বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক সীমান্তের ১০০ মিটার এলাকার মধ্যে থেকে ফেন্সিংয়ের কাজে নিযুক্ত তিন শ্রমিককে অপহরণ করে জঙ্গিরা। গন্ডাছড়ার গঙ্গানগর সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের সময় বন্দুকের মুখে তাদের অপহরণ করে এনএলএফটি (NLFT-BM) জঙ্গিরা। এরপরই ওই তিন শ্রমিক সুবল দেবনাথ, সুভাষ ভৌমিক ও গণমোহন ত্রিপুরাকে মুক্ত করার জন্য পুলিশকে সবরকম ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব (Biplab Kumar Deb)। জঙ্গিদের সঙ্গে কোনও ধরনের আলোচনা করার প্রস্তাবও খারিজ করে দেন। পরে বাংলাদেশে অপহৃতদের আটকে রাখার খবর পেয়ে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকেরও হুমকি দিয়েছিলেন তিনি। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর লাগাতার হুমকি ও ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের প্রবল চাপে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালায় বাংলাদেশ সরকারও। এর ফলে বাধ্য হয়ে ওই তিন জন শ্রমিককে ছেড়ে দিতে বাধ্য হল জঙ্গিরা।

[আরও পড়ুন: রোহিঙ্গা শরণার্থীদের অনুপ্রবেশ, কাঁটাতার পেরিয়ে ত্রিপুরা হয়ে অসম ঢুকতেই গ্রেপ্তার ১৩]

অপহৃতরা জানিয়েছেন, বাংলাদেশ সীমান্তে ওপারে একটি জঙ্গি ঘাঁটিতে তাঁদের রাখা হয়েছিল। সীমান্ত থেকে পাঁচ কিলোমিটার ভিতরে ছিল এই ঘাঁটি। তাঁদের উপর শারীরিক নির্যাতনও চালানো হয়। তাদের মুক্তির জন্য ভারত সরকার বাংলাদেশের উপর চাপ সৃষ্টি করতেই অবস্থা বদলে যায়। তাই তারা কোন মুক্তিপণ দেননি।

[আরও পড়ুন: ‘‌পাগড়ি পরে বিপক্ষের নেতারাই স্লোগান দিচ্ছেন’‌, কৃষক বিক্ষোভ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য রবি কিষেণের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement