BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ক্লাসে মোবাইল আনা চলবে না, ঔরঙ্গাবাদের মহিলা কলেজে জারি ফতোয়া

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 1, 2020 2:54 pm|    Updated: February 1, 2020 2:54 pm

Mobile phone is not allowed in Aurangabad women college.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কলেজে মোবাইল ব্যবহার করা চলবে না। এই মর্মে নির্দেশিকা জারি করেছে মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদের রফিক জাকারিয়া মহিলা কলেজ  কর্তৃপক্ষ। কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, পড়ুয়াদের পড়াশোনায় মনোযোগ জোরদার করতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। গত ১৫ দিন ধরে কলেজে মোবাইল আনার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। জরুরী পরিস্থিতির জন্য কলেজে চত্বরে দু’টি ফোন রাখা হয়েছে। কলেজ কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে ছাত্রীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া মিলেছে।

জানা গিয়েছে, ঔরঙ্গাবাদের ওই কলেজে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর মোট ছাত্রীর সংখ্যা প্রায় ৩০০০ জন। তাঁরা কলেজে এসে বেশিরভাগ সময় মোবাইলে মগ্ন থাকত বলে অভিযোগ। বেশিরভাগ সময় ক্লাসে থাকত না পড়ুয়ারা। আর তাই এহেন নিয়ম আনতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এ প্রসঙ্গে কলেজের অধ্যক্ষ ড. মাকদুম ফারুকি জানিয়েছেন, “আমরা ছাত্রীদের পড়াশোনার মান নিয়ে চিন্তিত ছিলাম। তাদের উন্নয়নের চেষ্টা করছিলাম। গোটা পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করতে গিয়ে দেখলাম, মোবাইল ফোন আনলে ছাত্রীরা পড়ায় মন বসাতে পারছিল না। তাই কলেজে মোবাইল ফোন আনা বন্ধ করে দেওয়া হল।” তাঁর আরও দাবি, এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর থেকেই ছাত্রীদের মধ্যে পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে। তারা অনেক বেশি ক্লাসে থাকছে।

[আরও পড়ুন : কাশ্মীরবাসীর মন পেতে কল্পতরু কেন্দ্র, বড়সড় আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা কেন্দ্রের]

যেসমস্ত পড়ুয়ারা দূর থেকে কলেজে আসেন, তাঁরা মোবাইল এনে কর্তৃপক্ষের কাছে জমা করে রাখেন বলে খবর। কলেজ কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত প্রসঙ্গে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক বলেন,”প্রথমদিকে আমরা মনে করছিলাম, পড়ুয়াদের উপর এই সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। পরে দেখলাম এই সিদ্ধান্তে পড়ুয়াদের উপকারই হয়েছে। রেজাল্টেও এর প্রভাব পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।”

[আরও পড়ুন : বাজেট ২০২০: এবার বেসরকারিকরণের পথে LIC! বিমা সংস্থার শেয়ার বেচবে সরকার]

কলেজ কর্তৃপক্ষের এহেন সিদ্ধান্ত নিয়ে ছাত্রীরা কী বলেছন? ছাত্রীদের একাংশের দাবি, এই সিদ্ধান্তে পড়াশোনার সুযোগ বাড়ছে। আমরা মনোযোগ দিতে পারছি। লাইব্রেরিতে গিয়ে অনেক বেশি ম্যাগাজিন, বইপত্র পড়ার সুযোগ পেলাম। তবে বিপরীত মতও রয়েছে। ছাত্রীদের আরেক অংশের দাবি, মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়ার কোনও অধিকার কলেক কর্তৃপক্ষের নেই।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে