BREAKING NEWS

১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

রক্ষকই ভক্ষক! বাজেয়াপ্ত গাঁজা বিক্রি করে চূড়ান্ত বিপাকে ৪ পুলিশকর্মী

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: September 25, 2020 6:42 pm|    Updated: September 25, 2020 6:52 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কথায় আছে, রক্ষক যদি ভক্ষক হয় তাহলে কিছু করার থাকে না! দিল্লিতে অনেকটা সেই ঘটনাই ঘটতে চলেছিল। এক চোরাকারবারির থেকে বাজেয়াপ্ত করা গাঁজা খোলা বাজারে বিক্রি করেছিল চার পুলিশকর্মী। কিন্তু, শেষ রক্ষা হল না। এই ঘটনার জেরে চাকরি থেকে বরখাস্ত হতে হল তাদের। ঘটনাটি ঘটেছে নয়াদিল্লির জাহাঙ্গীরপুরি এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সেপ্টেম্বরের ১১ তারিখ নয়াদিল্লির জাহাঙ্গীরপুরি (Jahangirpuri)  বি ব্লকের একটি ঘর থেকে ১৫৯ কিলোগ্রাম গাঁজা (marijuana) বাজেয়াপ্ত করে একজন সাব ইনস্পেক্টর-সহ জাহাঙ্গীরপুরি থানার চার পুলিশকর্মী। তারপর ধৃত মাদক কারবারি অনিল ও বাজেয়াপ্ত গাঁজা নিয়ে স্থানীয় পুলিশ চৌকিতে যায়। সেখানে পৌঁছনোর পর ডেকে পাঠানো হয় অনিলের পরিবারের লোকদের। তারা সেখানে এলে ওই চার পুলিশকর্মী বলে, দেড় লক্ষ টাকা ঘুষ দিলে অনিলকে ছেড়ে দেওয়া। তাদের কথা মতো ওই টাকা দেয় অনিলের বাড়ির লোক। আর নিজেদের প্রতিশ্রুতি মতো টাকা পেতেই অনিলকে ছেড়ে দেয় অভিযুক্তরা। সরকারি খাতায় মাত্র ৯২০ গ্রাম গাঁজা বাজেয়াপ্ত করার কথা লিখে অনিলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

[আরও পড়ুন: ভেজাল রুখতে কড়া কেন্দ্র, এবার থেকে সরষের তেলে মেশানো যাবে না ভোজ্য তেলও!]

অনিল থানা থেকে চলে যাওয়ার পর ১৫৮ কিলো গাঁজা স্থানীয় মাদক কারবারিদের কাছে বিক্রি করে দেয় ওই চারজন পুলিশকর্মী। তারপর ওই টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নেয়। প্রথমে এই বিষয়ে কেউ কিছু জানতে পারেনি। ফলে বেশ আনন্দেই ছিল অভিযুক্তরা। কিন্তু, পরে নয়াদিল্লির সহকারী পুলিশ কমিশনার (উত্তর-পশ্চিম) বিজয়ন্তা আর্য্যর কাছে এই ঘটনার খবর পৌঁছলে তিনি তদন্তের নির্দেশ দেন। আর শুরুতেই মাদক কারবারি অনিলকে জেরা করার পরেই সমস্ত বিষয়টি জানতে পারেন তদন্তকারীরা। বিস্তারিত প্রমাণ জোগাড় করার পরেই চার অভিযুক্তকে বহিষ্কার করা হয়।

[আরও পড়ুন: ভারত ছাড়ল হার্লে ডেভিডসন, প্রভাব পড়তে পারে নয়াদিল্লি-ওয়াশিংটন সম্পর্কে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement