BREAKING NEWS

১৩ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  বুধবার ২৭ মে ২০২০ 

Advertisement

ভেস্তে গেল লকডাউনের মধ্যে নাশকতার ছক, কাশ্মীরে সেনার গুলিতে খতম ৪ হিজবুল জঙ্গি

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 4, 2020 9:44 am|    Updated: April 4, 2020 1:30 pm

An Images

ফাইল ফটো

মাসুদ আহমেদ, শ্রীনগর: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে পুরো বিশ্ব যখন ব্যস্ত। তখনও সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়া বন্ধ করছে না পাকিস্তান। গত দুদিন ধরেই সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে সীমান্তের ওপার থেকে গুলি ও গোলা ছুঁড়ছে। এর ফলে কয়েকজন ভারতীয় জওয়ান জখমও হয়েছেন। এর মাঝেই শনিবার সকালে তাদের মদতপুষ্ট চার হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গিকে খতম করলেন নিরাপত্তারক্ষীরা। ঘটনাটি ঘটেছে জম্মু ও কাশ্মীরের কুলগাম জেলার হার্দমানগুড়ি বাটাপোরা এলাকায়। এখনও গুলির লড়াই চলছে। ঘটনাস্থলে আরও তিন জঙ্গি আটকে পড়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার গভীর রাতে বিশেষ সূত্রে প্রশাসনের কাছে খবর আসে হার্দমানগুড়ি বাটপোরা এলাকায় কয়েকজন জঙ্গি লুকিয়ে আছে। বুধবার রাতে এই জঙ্গিরাই কুলাগাম জেলার নন্দীমার্গ এলাকার সিরাজ আহমেদ গোরসে ও গুলাম হাসান ওয়াগে নামে দুই সাধারণ বাসিন্দাকে গুলি করে হত্যা করেছিল বলেও জানা যায়। এরপরই ভারতীয় সেনার ৩৪ নম্বর রাষ্ট্রীয় রাইফেলস এবং জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের যৌথ বাহিনী বাটপোরা এলাকা ঘিরে ফেলে তল্লাশি চালাতে আরম্ভ করেন। শনিবার সকালে তাঁরা যখন লুকিয়ে থাকা জঙ্গিদের সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছেন তখন আচমকা জঙ্গলের আড়াল থেকে গুলি চালাতে আরম্ভ করে জঙ্গিরা। পালটা জবাব দেন নিরাপত্তারক্ষীরাও। বেশ কিছুক্ষণ গুলির লড়াই চলার পর চার জঙ্গি খতম হয়। আর তাদের বাকি তিন সঙ্গী আরও গভীর জঙ্গলে ঢুকে গুলি ছুঁড়তে থাকে। তখন ঘটনাস্থল থেকে তিন জঙ্গির মৃতদেহ উদ্ধার করেন নিরাপত্তারক্ষীরা।

[আরও পড়ুন: লকডাউনের মাঝেই নয়া সিদ্ধান্ত, ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বাতিল এয়ার ইন্ডিয়ার সমস্ত বুকিং ]

জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের এক আধিকারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার রাতে ওই জঙ্গিরা কুলগামের নন্দীমার্গ এলাকার দুই বাসিন্দাকে হত্যা করেছিল। শনিবার সকালে ওই জঙ্গিদের মধ্যে তিনজনকে খতম করা সম্ভব হয়েছে। বাকি তিন জঙ্গির সঙ্গে এখনও গুলি লড়াই চলছে। মৃত জঙ্গিদের নাম ফয়াজ, আদিল ও মহম্মদ শাহিদ। প্রত্যেকের বাড়ি কুলগামের ডিএইচ পোরা এলাকায়।

[আরও পড়ুন: লকডাউন ভেঙে নামাজ পড়ার ধুম, বোঝাতে গিয়ে আক্রান্ত পুলিশ কর্মীরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement