২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়া থেকে থেকে উদ্ধার হল ৪০ কেজি বিস্ফোরক। সোমবার সকালে দেওয়াল গ্রামের দিলাওয়াল এলাকা থেকে এই বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়। এলাকায় তল্লাশি চালাতে গিয়ে এই বিস্ফোরক উদ্ধার করে কাশ্মীর পুলিশ। ওই এলাকায় বিস্ফোরক মজুত করা ছিল। ঘটনার পর দেশের নিরাপত্তার উপর প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

[ আরও পড়ুন: অভূতপূর্ব কৌশল! ‘হাউডি মোদি’র প্রশংসায় প্রশান্ত কিশোর ]

পুলিশ সূত্রে খবর, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে কাঠুয়ার দেওয়াল এলাকায় তল্লাশি চালানো হয়। জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের সঙ্গে এই অভিযানে অংশ নেন ভারতীয় সেনার গোয়েন্দারাও। তল্লাশি চালানোর সময়ই একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এখনই এর থেকে বেশি তথ্য জানা যায়নি। তবে ৪০ কেজি বিস্ফোরক উদ্ধার হওয়ার পর থেকে রাজ্যের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এলাকাবাসীর মনে ফের আতঙ্ক তৈরি করছে পুলওয়ামার স্মৃতি।  

সম্প্রতি গোয়েন্দা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালিসিস উইংয়ের একটি রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, পাকিস্তান সরকারের মদতপুষ্ট আফগান জঙ্গিদের পাশাপাশি ভারতে হামলা চালানোর ছক কষছে জইশ-ই-মহম্মদ। তাদের লক্ষ্য জম্মু ও কাশ্মীরে থাকা নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানরা। ওই রিপোর্ট আরও জানা গিয়েছে, গত ১৯ আগস্ট পাকিস্তানের ভাওয়ালপুরের মার্কাজ উসমান-ও-আলি এলাকায় বৈঠকও করেছে জঙ্গিরা। তাদের নেতৃত্বে ছিল জইশ প্রধান মাসুদ আজহারের ভাই রউফ আসগর। সেই মিটিংয়ে কাশ্মীরের বিভিন্ন স্কুল ও সরকারি বিল্ডিংয়ে বিস্ফোরণ ঘটানোর পাশাপাশি জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিশকর্তাদের খুন করা নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

এছাড়া একদিন আগে সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত জানিয়েছেন, বালাকোটকে ফের সক্রিয় হয়ে উঠছে পাকিস্তান। ৫০০ জন জঙ্গি ভারতে অনুপ্রবেশ করার জন্য মুখয়ে রয়েছে। সব মিলিয়ে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। পরিস্থিতি ফের হাতের বাইরে চলে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে মনে করছেন তাঁরা।

[ আরও পড়ুন: ভেঙে পড়েছেন চিদম্বরম, চাঙ্গা করতে তিহাড়ে গিয়ে সাক্ষাৎ সোনিয়া-মনমোহনের ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং