৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুলিশ-মাওবাদী সংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত ছত্তিশগড়ের অবুজমাঢ়ের জঙ্গল৷ এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত পাঁচজন মাওবাদীকে নিকেশ করা হয়েছে৷ আত্মরক্ষায় মাওবাদীদের ছোঁড়া পালটা গুলিতে জখম হয়েছেন দুই পুলিশকর্মী৷ তাঁদের অবস্থাও বেশ আশঙ্কাজনক৷ এই ঘটনার পর থেকে জঙ্গলে ঢাকা এলাকার নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে৷

[আরও পড়ুন: নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই কাশ্মীর যাচ্ছেন রাহুল, সঙ্গে তৃণমূল-সহ ৯ বিরোধী দলের প্রতিনিধি]

মহারাষ্ট্র এবং ছত্তিশগড়ের সীমান্তে অবস্থিত নারায়ণপুরের বস্তারের অবুজমাঢ়ের জঙ্গল৷ প্রায় ছ’হাজার কিলোমিটার জায়গা জঙ্গলে ঢাকা৷ সেই সুযোগে বেশ কয়েকজন মাওবাদী ওই এলাকায় গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে বলেই খবর পায় পুলিশ৷ ধুরভেদা জঙ্গলে এক্কেবারে ক্যাম্প তৈরি করে সেখানে মাওবাদীরা ঘাঁটি গেড়েছে বলেই জানা যায়৷ সেই অনুযায়ী ওই এলাকায় হানা দেয় বিশাল পুলিশবাহিনী৷ তাদের উপস্থিতি টের পেতে বিশেষ সমস্যা হয়নি মাওবাদীদের৷ সঙ্গে সঙ্গে গোপন ডেরা থেকে গুলি চালাতে শুরু করে মাওবাদীরা৷ পালটা জবাব দেয় পুলিশকর্মীরা৷ প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে চলে দু’পক্ষের গুলির লড়াই৷ তাতে একে একে পাঁচজন মাওবাদীকে খতম করা হয়৷ তাদের প্রত্যেকের কাছেই ছিল অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র৷ ওই অস্ত্রশস্ত্রগুলি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ এদিকে, শনিবার সকালে মাওবাদীদের ছোঁড়া গুলিতে দু’জন পুলিশকর্মীও গুরুতর জখম হন৷ তাঁদের স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে৷

[আরও পড়ুন: ফের ফিক্সড ডিপোজিটের সুদে কোপ, SBI-এর সিদ্ধান্তে মধ্যবিত্তের ভাঁড়ারে ধাক্কা]

এর আগে গত ৩ আগস্ট রাজনন্দগাঁওয়ে মাওবাদী এবং পুলিশের সংঘর্ষ বাঁধে৷ বেশ কিছুক্ষণ ধরে চলা গুলির লড়াইতে নিকেশ হন অন্তত সাতজন মাওবাদী খতম হয়৷ তাদের কাছ থেকেও বেশ অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল৷ একই মাসে আবারও বস্তারে খতম পাঁচ মাওবাদী৷ এটাই চলতি মাসের দ্বিতীয় বড়সড় এনকাউন্টার বলেই দাবি পুলিশের৷ বারবার এনকাউন্টার সত্ত্বেও মাওবাদীদের সক্রিয়তা ভাবাচ্ছে প্রশাসনকে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং