২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতে অনুপ্রবেশের জন‌্য এই মুহূর্তে বালাকোটে মুখিয়ে রয়েছে ৫০০ জঙ্গি। যে কোনও সময় তারা হামলা করতে পারে। সোমবার চেন্নাইয়ে ‘অফিসার্স ট্রেনিং অ্যাকাডেমি’র একটি অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পাক জঙ্গিদের নাশকতার ছক এভাবেই ফাঁস করলেন সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত। তিনি বলেন, জইশ জঙ্গিরা ইজরায়েলের তৈরি লেজার-গাইডেড বোমা দিয়ে ভারতে আঘাত করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। অনুপ্রবেশের সুযোগের অপেক্ষায় বালাকোটের জঙ্গি শিবিরগুলিতে আত্মগোপন করে রয়েছে।

[ আরও পড়ুন: তুচ্ছ শারীরিক প্রতিবন্ধকতা, পাহাড় পেরিয়ে শিবঠাকুরের দুর্গম দেশে দৃষ্টিহীন শিশুরা ]

চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় সেনা কনভয়ে জঙ্গি হামলার পালটা জবাবে ভারতীয় বায়ুসেনার বালাকোট হামলার সত‌্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা বিরোধীর উদ্দেশে সেনাপ্রধান আরও বলেন, ‘‘বালাকোটকে পাকিস্তান আবার সক্রিয় করে তুলছে। এর থেকে প্রমাণ হয়, বালাকোট ভারতীয় বায়ুসেনার বিমানহানায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। এই বাস্তবও তুলে ধরে যে বালাকোটে ভারতীয় বিমানবাহিনী অভিযান চালিয়েছিল। কিন্তু এখন ওই জঙ্গিরা আবার সেখানে ফিরে এসেছে।’’ পাকিস্তান সমানে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে জঙ্গিদের ভারতের মাটিতে ঢোকানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলেও সতর্ক করেছেন রাওয়াত। তাঁর কথায়, ‘‘কীভাবে সংঘর্ষ বিরতিকে সামলাতে হয় তা আমরা জানি। আমাদের সেনারা জানে এই পরিস্থিতিতে কেমন অ‌্যাকশন নিতে হয়। আমরা সতর্ক আছি। বেশিরভাগ অনুপ্রবেশ রুখতেই সফল হব।’’

[ আরও পড়ুন: নাশকতার ছক? কাঠুয়ায় বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক উদ্ধারের পর জোরদার আশঙ্কা   ]

গত সপ্তাহেই গোয়েন্দাবাহিনীর সূত্রে খবর মিলেছিল, বালাকোটে ফের সক্রিয় হচ্ছে জঙ্গি শিবিরগুলি। এরপরেই ভারতের সেনাপ্রধান এদিন এই মন্তব্য করে ঘটনার সত‌্যতার কথা মেনে নিলেন। ৩৭০ ধারা বিলোপের পর কাশ্মীরবাসীদের সঙ্গে মিশে বহু জঙ্গি লুকিয়ে থাকতে পারে বলেও বিভিন্ন মহলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সে প্রসঙ্গে বিপিন রাওয়াত দাবি করেন, ‘‘কাশ্মীর উপত‌্যকায় জঙ্গিদের সঙ্গে পাকিস্তানে তাদের চক্রীদের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে। কিন্তু ভূস্বর্গের মানুষের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ নষ্ট হয়নি।’’ কিছু মানুষ ধ্বংস চায়, তাই ইসলামের ভুল ব‌্যাখ‌্যা দিয়ে বহু মানুষকে প্রভাবিত করে ভুল পথে চালিত করছে বলে দাবি সেনাপ্রধানের। তাঁর কথায়, ‘‘আমার মনে হয় আমাদের দেশে এমন ধর্মীয় গুরুর দরকার যিনি ইসলামের অর্থ সঠিকভাবে ব‌্যাখ‌্যা করতে পারেন।’’ অন‌্যদিকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি এদিন কাশ্মীরে বন্ধ হয়ে পড়ে থাকা বহু স্কুল পুনরায় খোলার কথা ঘোষণা করেছেন। একইসঙ্গে তিনি বলেন, ভূস্বর্গে ৫০ হাজার মন্দির বছরের পর বছর ধরে বন্ধ হয়ে পড়ে আছে। মন্দিরের মূর্তিগুলি নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। এমন সব মন্দির নিয়ে সমীক্ষা করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং