Advertisement
Advertisement

Breaking News

ফের অন্ধ্রপ্রদেশে বিষাক্ত গ্যাস লিক করে অসুস্থ অন্তত ১৫০, লম্বা লাইন হাসপাতালে

গ্যাস লিকের কারণ নিয়ে ধন্দে পুলিশ।

87 hospitalised after gas leak incident in Andhra's Atchyutapuram | Sangbad Pratidin

প্রতীকী ছবি।

Published by: Kishore Ghosh
  • Posted:August 3, 2022 11:00 am
  • Updated:August 3, 2022 6:00 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেড়ে চলেছে অসুস্থের সংখ্যা। অন্ধ্রপ্রদেশের (Andhra Pradesh) আনাকাপাল্লে জেলার ব্র্যান্ডিক্স নামক বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের একটি কাপড়ের কারখানায় গ্যাস লিক (Gas Leak) করে এখনও পর্যন্ত অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ১৫০ জন। এদের মধ্যে ১২১ জনকে হাসপাতালে ভরতি করতে হয়েছে। সকলেই বমি ও মাথা ঘোরা নিয়ে ভরতি হয়েছেন হাসপাতালে।

গ্যাস লিকের ঘটনায় গতকাল রাতেই কমপক্ষে ৫০ জনকে হাসপাতালে ভরতি করতে হয়। তখন জানা গিয়েছিল, অসুস্থ কর্মচারীদের সকলেই মহিলা। সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা যায়, গতকাল কারখানায় কাজ চলাকালীন আচমকা কর্মীরা অসুস্থ বোধ করেন। সকলে বমি করতে শুরু করেন। কর্মীদের স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্র নিয়ে যাওয়া হলেও অনেকে অতিরিক্ত অসুস্ত হয়ে পড়েন। ফলে তাঁদের বিশাখাপত্তনাম শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভরতি করা হয়। আজ সকাল অবধি অসুস্থের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৫০। একাধিক হাসপাতালে ভরতি করতে হয়েছে ১২১ জনকে। তবে এখনও অবধি মৃত্যুর ঘটনা নেই।

Advertisement

[আরও পড়ুন: দেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১৭ হাজারেরও বেশি, স্বস্তি দিয়ে কমছে অ্যাকটিভ কেস]

পুলিশ জানিয়েছে, রাত ৯টা নাগাদ অচ্য়ুতাপুরমের একটি কারখানায় গ্যাস লিক হয়। বেশ কয়েকজন মহিলা অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। পরে অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হয়। অসুস্থতার কারণ এখনও স্পষ্ট নয়। প্রশাসনের তরফে আরও জানানো হয়েছে, বর্তমানে ওই প্ল্যান্টে কোনও গ্যাসের গন্ধ নেই। তবু এলাকার সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে আপাতত প্ল্যান্টটি বন্ধ রাখা হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘সংখ্যালঘু সমস্যাতেই ডুবেছে শ্রীলঙ্কা, শিক্ষা নিক ভারতও,’ সতর্ক করলেন রঘুরাম রাজন]

এদিকে গতকালই দুর্ঘটনার তদন্তে নামে দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদও। পর্ষদ সদস্যরা বাতাসের নমুনা সংগ্রহ করে সেকেন্দ্রাবাদের ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অব কেমিক্যাল টেকনোলজিতে পাঠিয়েছেন পরীক্ষার জন্য। প্রাথমিক রিপোর্টে জানা গিয়েছে, বিষাক্ত গ্যাসের কারণেই অসুস্থ হয়ে পড়েন কারখানার মহিলা কর্মচারীরা। বমি ও মাথা ঘোরা শুরু হয়। জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

প্রসঙ্গত, এর আগেও ওই শিল্পাঞ্চলে একটি রাসায়নিক পরীক্ষাগারে গ্যাস লিকের ঘটনা ঘটেছিল। ৩ জুনের সেই ঘটনায় প্রায় ২০০ জন অসুস্থ হয়েছিলেন। সেবার অ্যামোনিয়া গ্যাস লিক করে দুর্ঘটনা ঘটে। অন্ধ্রপ্রদেশ দূষণ পর্ষদ পরীক্ষাগারটিকে বন্ধ করার নির্দেশ দেয়।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ