১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  সোমবার ৫ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিকট বিস্ফোরণে ফেটে পড়ল এলইডি টিভি, প্রাণ গেল কিশোরের, ধসে গেল বাড়ির একাংশ

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: October 5, 2022 11:13 am|    Updated: October 5, 2022 11:21 am

A 16 year old boy Dead in a LED TV Explodes At UP Home | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মর্মান্তিক মৃত্যু! উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) এলইডি টিভি বিস্ফোরণে (LED TV Blast) নিজের বাড়িতে মৃত্যু হল ১৬ বছর বয়সি এক কিশোরের৷ দুর্ঘটনায় আহত তার মা, বৌদি এবং বন্ধু৷ বিস্ফোরণের তীব্রতায় বড়সড় গর্ত তৈরি হয়েছে দেওয়ালে, যেখানে লাগানো ছিল টিভি। এছাড়াও গোটা বাড়ির দেওয়াল ও ছাদে কমবেশি ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ঘটনার তদন্ত নেমেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদের (Gajiabad)। আচমকা বিস্ফোরণ হয় দেওয়ালে লাগানো একটি এলইডি টিভিতে। তাতেই মৃত্যু হয়েছে ১৬ বছরের ওমেন্দ্রের (Omendra)। বিস্ফোরণের পরে তার মুখ, বুক ও গলায় গভীর ক্ষত তৈরি হয়। পরিবার ও প্রতিবেশীরা কিশোরকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গেলেও সেখানে তার মৃত্যু হয়। জানা গিয়েছে, এতই তীব্র বিস্ফোরণ ছিল যে তার অভিঘাতে ধসে যায় বাড়ির একটি দেওয়াল এবং কংক্রিটের স্ল্যাব৷ দুর্ঘটনার জেরে আতঙ্কিত এবং হতচকিত হয়ে যান স্থানীয় বাসিন্দারা৷

[আরও পড়ুন: সংসদীয় কমিটি নিয়ে বিজেপির রাজনীতি, সুদীপকে সরিয়ে চেয়ারম‌্যান পদে বসানো হল লকেটকে]

এক প্রতিবেশী বিনীতা জানান, বিস্ফোরণে প্রচণ্ড শব্দ পান। তাঁরা ভেবেছিলেন গ্যাস সিলিন্ডারে ব্লাস্ট হয়েছে বুঝি। বিনীতা বলেন, “গ্যাস সিলিন্ডারে বিস্ফোরণ হয়েছে ভেবে ছুটে ঘরের বাইরে চলে আসি। দেখি পাশের বাড়ি থেকে ধোয়া বের হচ্ছে।” জানা গিয়েছে, টিভিতে বিস্ফোরণের সময় ওমেন্দ্রর মা, বৌদি ও এক বন্ধু ছিল একই ঘরে। তারাও আহত হয়েছেন। মা ও বন্ধু করণকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। পরিবারের আরেক সদস্য মনিকা সেই সময় অন্য ঘরে ছিলেন। তিনি জানান, বিস্ফোরণের তীব্রতায় গোটা বাড়ি থরথর করে কেঁপে উঠেছিল। টিভির ঘরটি ছাড়াও অন্য ঘরের দেওয়ালের ক্ষতি হয়েছে।

[আরও পড়ুন: রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা অ্যাম্বুল্যান্সে ধাক্কা গাড়ির, মুম্বইয়ে প্রাণ গেল অন্তত ৫ জনের]

ঠিক কোন কারণে টিভিতে বিস্ফোরণ ঘটল। ওই এলইডি টিভিতে প্রযুক্তিগত কোনও ত্রুটি ছিল কিনা তা এখনও জানা যায়নি। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। সবকিছু ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। মঙ্গলবারের মর্মান্তিক ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে পরিবারটি।  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে