১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ৩০ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

উত্তরপ্রদেশে নবরাত্রির অনুষ্ঠান দেখে ফেরার পথে তরুণীকে গণধর্ষণ! প্রশ্নে নারী নিরাপত্তা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 23, 2020 8:50 am|    Updated: October 23, 2020 8:50 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) ফের গণধর্ষণ। এবার নির্যাতনের শিকার এক যুবতী। নবরাত্রির অনুষ্ঠান দেখে ফেরার পথে তাঁকে ধর্ষণ করে তিন দুষ্কৃতী। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

ঘটনাটি বুধবার রাতের। উত্তরপ্রদেশের মাহবা জেলার (Mahoba) পানওয়াড়ি এলাকার ওই তরুণী নবরাত্রির (Navaratri) আরতি দেখে বাড়ি ফিরছিলেন। মাঝপথে তাঁকে কার্যত অপহরণ করে তিন যুবক। ওই তরুণীকে নিয়ে যাওয়া হয় নির্জন এলাকায়। সেখানেই তিন দুষ্কৃতী মিলে তাঁকে গণধর্ষণ করে। মাহবা জেলার পুলিস সুপার অরুণ কুমার শ্রীবাস্তব বলছিলেন, “পানওয়াড়ি এলাকায় একটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। তবে পুলিশ খুব দ্রুত পদক্ষেপ করে ৩ দুষ্কৃতীকেই গ্রেপ্তার করেছে। এরা নির্যাতিতাকে রাতের অন্ধকারে নির্জন জায়গায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছিল।” উল্লেখ্য, বুধবার রাতেই ওই নাবালিকার ধর্ষকদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে দবি পুলিশের। বৃহস্পতিবার নির্যাতিতাকে পাঠানো হয় শারীরিক পরীক্ষার জন্য। এদিকে উত্তরপ্রদেশের রামপুরে একই ধরনের ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এক্ষেত্রে ১৫ বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত দুই যুবক। দু’জনকেই গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

[আরও পড়ুন: ‘আত্মনির্ভর’ হতে গেলে রপ্তানির সঙ্গে আমদানিও প্রয়োজন, সরকারকে পরামর্শ রঘুরাম রাজনের]

আসলে সার্বিকভাবেই উত্তরপ্রদেশে নারী নিরাপত্তা নিয়ে বহু প্রশ্ন উঠছে। বিশেষ করে হাথরাস কাণ্ডের পর। কিন্তু তাতেও সজাগ হয়নি প্রশাসন। প্রতিদিন রাজ্যের কোনও না কোনও প্রান্তে কোনও না কোনও ধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে আসছে। পরিসংখ্যান বলছে, প্রতিদিন উত্তরপ্রদেশে প্রায় ১১ জন করে মহিলা ধর্ষিতা হন। অনেক খবর প্রকাশ্যে আসে, অনেক আসে না। লোকলজ্জার ভয়ে অনেকেই মুখ বুঝে অত্যাচার সহ্য করেন। অনেকেই আবার সুবিচার পাওয়ার আশাই ছেড়ে দিয়েছেন। এরপরও যদি প্রশাসন সতর্ক না হয়, তাহলে বিরোধীদের প্রশ্ন তোলাটাই স্বাভাবিক। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement