BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অশরীরী বৃদ্ধার বিভীষিকায় জনশূন্য যে বাড়ি!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 19, 2016 6:06 pm|    Updated: July 19, 2016 6:06 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছোটবেলায় ভূত নিয়ে সকলেরই বেশ আগ্রহ থাকে৷ ভূতে ভয় পাওয়ার মধ্যেও থাকত এক অদ্ভুত ধরনের মজা৷ বানিয়ে বানিয়ে ভূত দেখার গল্পও বলত অনেকেই৷ কিন্তু ২২ বছরের দীপক নিজের ১২ বছর বয়সের এক ভৌতিক অভিজ্ঞতা জানিয়েছেন, যা গল্প নয়, সত্যি৷

বাবা-মা’র সঙ্গে গ্রাম থেকে শহরে এসেছিলেন দীপক৷ নতুন বাড়িতে সবকিছু প্রথমে বেশ ভালই ছিল৷ কিন্তু বিপদ বাধল এক রাতে৷ হঠাৎ মাঝরাতে ঘুম ভেঙে গেল কিশোর দীপকের৷ ঘুম থেকে উঠে সে দেখে তার সামনে এক বৃদ্ধা দাড়িয়ে রয়েছে৷ বৃদ্ধার অদ্ভুত দৃষ্টি দেখে বেশ ভয় পেয়ে গিয়েছিল সে৷ সাহায্যের জন্য মা-বাবা’কে ডাকার চেষ্টা করতে গিয়ে সে দেখে হাত-পা নাড়াতে পারছে না৷ শুধু তাই নয় চিৎকার করার জন্য গলা দিয়ে আওয়াজও বেরোচ্ছে না৷ ভয়ের চোটে জ্বর এসে গিয়েছিল দীপকের৷

এই ঘটনার পর থেকে একাধিকবার এমন ভয়াবহ অভিজ্ঞতার শিকার হতে থাকে দীপক৷ একদিন মধ্যরাতে তার গায়ে সিলিং ফ্যান পড়ে যায়৷ এই ঘটনার জন্য কে অভিযুক্ত তা বুঝে ওঠার অবস্থা তখন ছিল না৷ তাই দ্রুত দীপককে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়৷

সেদিন রাতে ডাক্তারখানা থেকে ফিরে বিশ্রাম নিচ্ছিল দীপক৷ হঠাৎই এক অদ্ভুত আওয়াজ শুনতে পায় সে৷ ভয়ে ভয়ে চাদর সরিয়ে বাইরে তাকিয়ে দীপক দেখল ঘরের ছাদ থেকে ঝুলে রয়েছে সেই বৃদ্ধা৷ দীপকের দিকে তাকিয়ে ভয়ানকভাবে হাসছে৷ ভয়ের চোটে জ্ঞান হারিয়েছিল দীপক৷

জ্ঞান ফিরে আসার পর দীপক দেখে তার মা মাথার কাছে বসে রয়েছেন৷ নিজের অভিজ্ঞতার কথা সে তার মা’কে জানালে তিনি বলেন তিনিও একই ধরনের পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছেন৷

আর এই ঘটনার ১৫ দিনের মধ্যে দীপক ও তার পরিবার সেই বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে যান৷ দীপকের মতে, একজন মনের ভুলে অকারণ ভূতের ভয় পেতে পারে৷ কিন্তু একই অভিজ্ঞতা দীপকের মা’র ও হয়েছিল৷ তাই ওই বাড়িতে অশরীরীর উপস্থিত থাকার ঘটনাটি নিয়ে এক প্রকার নিশ্চিত হয়ে গিয়েছেন তিনি৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement