BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিয়ের আগে প্রেম! স্কুলের চাকরি খুইয়ে বিপাকে এই শিক্ষক দম্পতি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 14, 2017 2:01 pm|    Updated: September 19, 2019 2:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একেই বোধহয় বলে প্যায়ার কে সাইড এফেক্ট! কাশ্মীরে প্রেম করে বিয়ে করার অপরাধে চাকরি গেল এক শিক্ষক দম্পতির! বিয়ের দিনই নবদম্পতিকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করল বেসরকারি স্কুল কর্তৃপক্ষ। স্কুলের কমিটি সভাপতি বক্তব্য, বিয়ের সঙ্গে থেকেই শিক্ষক ও শিক্ষিকার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ঘটনায় পড়ুয়াদের মনে বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে। তাই দু’জনকেই চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

[রাষ্ট্রপতি কোবিন্দের হাত থেকে স্বর্ণপদক নিতে অস্বীকার দলিত ছাত্রের]

পাত্র ও পাত্রী দুজনেরই বাড়ি কাশ্মীরের পুলওয়ামার দ্রাল শহরে। চাকরিও করেন একই স্কুলে। শহরের একটি বেসরকারি সংস্থার বয়েজ স্কুলে পড়াতেন তারিক ভাট। ওই সংস্থারই গার্লস স্কুলের শিক্ষিকা ছিলেন সৌমায়া বসির। গত ৩০ নভেম্বর বিয়ে করেন তাঁরা। অভিযোগ, বিয়ের দিনই দু’জনকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। কারণ? পরিচালন সমিতির চেয়ারম্যান বাসির মাসুদির সাফ কথা, ‘ওঁনারা প্রেম করছিলেন। আমাদের স্কুলের প্রায় দু হাজার ছাত্র-ছাত্রী পড়াশোনা করে। ২০০ জন কর্মীও আছেন। এই ঘটনায় স্কুলের পরিবেশ নষ্ট হতে পারে। তাই দু’জনকেই চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।’ যদিও এবিষয়ে মুখ খুলতে চাননি স্কুলের প্রিন্সিপাল।

[অমরনাথের পবিত্র গুহা ‘সাইলেন্ট জোন’ নয়, জানাল পরিবেশ আদালত]

সদ্য বিয়ে করেছেন। চাকরি হারিয়ে এখন বিপাকে পড়েছেন ওই শিক্ষক দম্পতি। তারিক ভাটের দাবি, ‘ দেখেশুনেই আমাদের বিয়ে হয়েছে। কয়েক মাসেই বাগদান অনুষ্ঠান হয়। স্কুল কর্তৃপক্ষ সবই জানত। বাগদানের পর সৌমিয়া সহকর্মীদের জন্য পার্টিও দিয়েছিল।’  তাঁর সংযোজন, বিয়ের জন্য একমাসে আগে আমার দু’জনে একসঙ্গেই ছুটির আবেদন করেছিলাম। দুজনকে ছুটিও দেওয়া হয়েছিল। তাহলে কী আমাদের বিয়ে ঠিক হওয়ার পর, প্রেমের কথা জানতে পেরেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ?’ ওই দম্পতির সাফ কথা, বিয়ে করে কোনও অন্যায় বা পাপ করেননি। তাঁদের ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই ইচ্ছাকৃতভাবে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

[এক বাঙালির হাত ধরেই হিমাচলে আবিষ্কার অতি বিরল কেউটের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement