১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভয়ংকর! মাদকাসক্ত ছেলেকে খুন করলেন বাবা, দেহ টুকরো করে ছড়িয়ে দিলেন শহরের বিভিন্ন জায়গায়

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: July 25, 2022 1:18 pm|    Updated: July 25, 2022 2:00 pm

A Man kills addict son, chops up body and disposes off at different areas in Ahmedabad | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাদকাসক্ত ছেলেকে খুন করার অভিযোগ উঠল প্রৌঢ় বাবার বিরুদ্ধে। খুনের ঘটনা ধামাচাপা দিতে দেহ টুকরো করে আহমেদাবাদ (Ahamedabad) শহরের বিভিন্ন জায়াগায় ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বাবার বিরুদ্ধে। নেপালে পালানোর চেষ্টা করলেও শেষ পর্যন্ত পুলিশের চোখে ধুলো দিতে পারেনি অভিযুক্ত। রাজস্থানের সোয়াই মাধোপুর স্টেশনে আওয়ধ এক্সপ্রেস থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাকে। তার বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

অভিযুক্ত ৬৫ বছরের নীলেশ জোশি (Nilesh Joshi)। অবসরপ্রাপ্ত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর তিনি। আহমেদাবাদ শহরের আম্বাওয়াড়ির বাসিন্দা সে। নীলেশের বিরুদ্ধে ২১ বছরের ছেলে স্বয়ম জোশিকে (Swam Joshi) খুন করার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ আধিকারিকরা জানিয়েছেন, স্বয়ম দীর্ঘদিন ধরেই মাদকাসক্ত। অতিরিক্ত মদ্যপান ছাড়াও নানরকম মাদক নিতেন। এই নিয়ে বাবা-ছেলের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়। অভিযুক্ত ১৮ জুলাই ছেলেকে খুন করে। এরপর ইলেক্ট্রনিক কাটার মেশিন দিয়ে ছয় টুকরো করেন দেহ। ছেলের দেহাংশ একাধিক প্লাস্টিক ব্যাগে ভরে শহরের ভাসনা ও ইল্লিস ব্রিজ এলাকায় ফেলে দেন।

[আরও পড়ুন: বুকে ব্যথা, ভুবনেশ্বর নেমে ইশারায় বোঝালেন পার্থ, এইমসে ঢোকার পথে বিক্ষোভ]

২০ জুলাই স্থানীয়রা দেহাংশ দেখতে পেয়ে আতঙ্কিত হন। এরপর পুলিশে খবর দেওয়া হলে খুনের ঘটনা সামনে আসে। তদন্ত শুরু হলে জানা যায়, মাদকাসক্ত ছেলের সঙ্গে নীলেশের অশান্তি লেগেই থাকত। ১৮ জুলাই ছেলে ফের বাবার কাছে নেশা করার জন্য টাকা চায়। এই নিয়ে দু’ জনের মধ্যে হাতাহাতি পর্যন্ত হয়। পরে ছেলের অজান্তে পিছন থেকে তাঁর মাথায় ভারী কিছু দিয়ে একাধিকবার আঘাত করেন নীলেশ। তাতেই মত্যু হয় বছর একুশের স্বয়মের। এরপর ইলেক্ট্রনিক কাটার মেশিন দিয়ে দেহ টুকরো করে শহরের বিভিন্ন জায়গায় ফেলে দেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপতি পদে শপথ নিলেন দ্রৌপদী মুর্মু, সংসদে উঠল ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগান]

পুলিশ আধিকারিকের বক্তব্য, নীলেশ নেপালে পালানোর চেষ্টা করে। যদিও উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের গোরক্ষনাথ মন্দির দর্শন করে নেপালে পালাতে চেয়েছিল সে। যদিও তা সম্ভব হয়নি। রাজস্থানের সোয়াই মাধোপুর স্টেশনে আওধ এক্সপ্রেস থেকে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ছ’ বছর ধরে নীলেশের স্ত্রী ও মেয়ে জার্মানির বাসিন্দা। আহমেদাবাদে ছেলের সঙ্গে থাকত নীলেশ জোশি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে