BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিমানে অভাব অক্সিজেনের, শ্বাসকষ্ট নিয়েই সফর যাত্রীদের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 3, 2017 7:42 am|    Updated: August 21, 2020 1:39 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের একবার সংবাদের শিরোনামে এয়ার ইন্ডিয়া। সরকারি বিমানসংস্থার বিরুদ্ধে উঠল খারাপ পরিষেবার অভিযোগ। গত রবিবার এসি মেশিন খারাপ হয়ে যায় বাগডোগরা থেকে দিল্লিগামী এয়ার ইন্ডিয়ার এআই-৮৮০ বিমান। আর তার জেরেই মাঝ আকাশে বিমানের মধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়লেন বেশ কয়েকজন যাত্রী। কিছুক্ষণ পরেই গোটা ঘটনাটির ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এরপরেই নেটদুনিয়ায় সমালোচনার মুখে পড়ে এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ।

[নারদ-কাণ্ডে সিবিআই দপ্তরে হাজির সাংসদ সুলতান আহমেদ]

জানা গিয়েছে, বাগডোগরা থেকে ১৬৮ জন যাত্রী নিয়ে দুপুর ১ টা ৫৫ নাগাদ দিল্লির উদ্দেশ রওনা দেয় এয়ার ইন্ডিয়ার এয়ারবাস ৩২০। কিন্তু ওড়ার ২০ মিনিট পরেই দেখা যায়, বিমানের ভিতরে অক্সিজেনের অভাব দেখা দিয়েছে। ফলে শ্বাসকষ্টে ভুগতে শুরু করেন যাত্রীরা। বিমানকর্মীদের অভিযোগ জানালে তাঁরা জানায়, বিমানের এসি মেশিন কাজ করছে না। তাই সাময়িকভাবে অক্সিজেনের অভাব দেখা দিয়েছে। শীঘ্রই সমস্যা মিটে যাবে। এরপর বেশ খানিকটা সময় কেটে গেলেও সমস্যা মিটছে না দেখে অক্সিজেন মাস্ক ব্যবহার করার চেষ্টা করেন যাত্রীরা। কিন্তু দেখা যায়, সেটিও ঠিকমতো কাজ করছে না। ঘটনায় উপস্থিত যাত্রীদের অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এরমধ্যেই জনৈক ব্যক্তি গোটা ঘটনার ভিডিও করে রাখেন।

 

[কোপা চ্যাম্পিয়ন চিলিকে হারিয়ে কনফেড কাপ ঘরে তুলল জার্মানি]

ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে, শ্বাসকষ্টে ভুগতে থাকা যাত্রীদের অবস্থা খুব সঙ্গীন। তাঁদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন সহযাত্রীরাই। হাতের কাছে থাকা কাগজ কিংবা রুমাল দিয়েই হাওয়া করে কষ্ট লাঘব করার চেষ্টা চলছে। এরপর অনেকেই সোশ্যাল সাইটে এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষের এই অব্যবস্থার সমালোচনা করেন। টুইট করে অনেকেই নিজেদের অসুবিধার কথা জানান। কেউ কেউ অভিযোগও করেন। যদিও বিমান কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে তারা জানায়, যান্ত্রিক ক্রুটির কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হবে।

[জিএসটি নিয়ে কি এই ভুলগুলিই বোঝাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা?]

কয়েকদিন আগেই কেন্দ্র জানিয়েছে, ক্ষতিতে চলা সরকারি বিমানসংস্থা এয়ার ইন্ডিয়াকে খুব শীঘ্রই বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়া হবে। একেই যাত্রী সংখ্যা কম, তার উপর এই ঘটনা সংস্থার পরিষেবা নিয়েও তুলে দিল প্রশ্ন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement