Advertisement
Advertisement
Congress

‘রামরাজ্যে’র দাবি তুলে কংগ্রেস থেকে বহিষ্কৃত, ‘আপস করব না’, সাফ কথা আধ্যাত্মিক গুরুর

বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা?

Acharya Pramod Krishnam's reaction on expulsion from Congress | Sangbad Pratidin
Published by: Kishore Ghosh
  • Posted:February 11, 2024 3:10 pm
  • Updated:February 11, 2024 6:17 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দলবিরোধী মন্তব্যের অভিযোগ ছিলই। গেরুয়া শিবিরের ভঙ্গিতে ‘রামরাজ্যে’র দাবি করেছিলেন, রামমন্দির নিয়ে প্রকাশ্যে বিজেপিকে সমর্থন করেছিলেন। পাশাপাশি সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Prime Minister Narendra Modi) সঙ্গে দেখা করেন আধ্যাত্মিক গুরু তথা প্রবীণ কংগ্রেস (Congress) নেতা আচার্য প্রমোদ কৃষ্ণম (Acharya Pramod Krishnam)। এর পরেই তাঁকে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে ছয় বছরের জন্য বহিষ্কার করে দল। বহিষ্কারের পর প্রথমবার মুখ খুলেছেন এই আধ্যাত্মিক গুরু। কী বললেন তিনি?

বহিষ্কারের পর শনিবার রাতেই এক্স হ্যান্ডেলে একটি পোস্ট করেন আচার্য প্রমোদ কৃষ্ণম। লেখেন, ‘রাম এবং রাষ্ট্র। কোনও আপস করব না।’ রবিবার দুপুরে নিজের আশ্রম কল্কি ধামে লম্বা প্রতিক্রিয়া দিলেন। সরাসরি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা না বলেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন। এবং ‘দলবিরোধী কার্যকলাপ’ নিয়ে কংগ্রেসের জবাবদিহি চাইলেন। প্রমোদের প্রশ্ন, ‘ভগবান রামের নাম নেওয়া, অযোধ্যায় যাওয়া কি দলবিরোধী?’

Advertisement

 

Advertisement

[আরও পড়ুন: হাসপাতালে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে মিঠুন, এখন কেমন আছেন মহাগুরু?]

এর পর বহিষ্কৃত কংগ্রেস নেতা সাফ জানালেন, “…এই বয়সে এসে আমার সিদ্ধান্ত হল, বাকি জীবন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পাশে থাকব। তিনি দেশের কাজ করছেন।” তাহলে কি বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন আধ্যাত্মিক গুরু? সরাসরি উত্তর দেননি। তিনি বলেন, “জানি না কোথায় যাব। ভগবানে বিশ্বাস আছে আমার, ভগবান যেখানে নিয়ে যাবেন সেখানেই যাব।” এবং বলেন, “আমি নরেন্দ্র মোদিজির সঙ্গে এবং মোদিজি দেশের সঙ্গে আছেন।”

 

[আরও পড়ুন: ফের CAA অস্ত্রে শান! লোকসভার আগেই লাগু হবে নাগরিকত্ব আইন, বড় ঘোষণা শাহর]

প্রসঙ্গত, লখনউ আসন থেকে ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন প্রমোদ কৃষ্ণম। পরাজিত হলেও বিপুল ভোট টেনেছিলেন আধ্যাত্মিক গুরু। এর আগে ২০১৪ সালে উত্তর প্রদেশের সম্বল থেকে ভোটে লড়েন এবং ব্যর্থ হন। উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে সাংগঠনিক কাজে সাহায্য করেন তিনি। যদিও সম্প্রতি সেই ব্যক্তিই রামমন্দির নিয়ে দলের অবস্থানের বিরোধিতা করেন। তার মন্তব্য ছিল, যেখানে রামমন্দিরকে স্বাগত জানাচ্ছেন অহিন্দুরাও, সেখানে দলের শীর্ষ নেতারা আমন্ত্রণ পেয়েও যাবেন না কেন! ‘রাম হল ভারতের আত্মা’।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ