BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রোগীদের চিকিৎসা না করে ফেরালে কড়া ব্যবস্থা, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 18, 2020 10:55 am|    Updated: April 18, 2020 10:55 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটল ডেস্ক: চিকিৎসার জন্য আসা কোনও রোগীকে হাসপাতাল থেকে ফিরিয়ে দিলে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। হুঁশিয়ারি দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। জানিয়েছেন, যদি কোনও রোগীর জরুরি ভিত্তিতে চিকিৎসার প্রয়োজন হয়, তবে তাঁর চিকিৎসা করতে হবে। চিকিৎসা ছাড়াই যদি তাঁকে হাসপাতাল থেকে অন্যত্র পাঠিয়ে দেওয়া হয় তবে উদ্দিষ্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করবে সরকার।

সম্প্রতি দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বৈজাল, স্বাস্থ্যমন্ত্রী সতেন্দর জৈনের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠক করেন হর্ষ বর্ধন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দিল্লির পৌর কমিশনাররা ও সরকারি হাসপাতালের সুপারিন্টেন্ডেন্টরা। সেই ভিডিও কনফারেন্সের সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, ইতিমধ্যেই তাঁর কাছে একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে। সেখানে বলা হয়েছে করোনা আক্রান্ত ছাড়া অন্য কোনও গুরুতর অসুস্থতায় ভোগা রোগীদের চিকিৎসা করছে হাসপাতাল। রোগীরা জরুরি পরিস্থিতিতে হাসপাতালে যাচ্ছেন। অথচ একাধিক হাসপাতাল তাঁদের চিকিৎসা করতে অস্বীকার করছে। অন্য হাসপাতালে স্থানান্তরিক করছে। এভাবে একের পর এক হাসপাতালের দ্বারস্থ হচ্ছেন রোগীরা। কিন্তু চিকিৎসা মিলছে না। এক্ষেত্রে তো রোগীদের মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে। আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন হর্ষ বর্ধন।

[ আরও পড়ুন: চিকিৎসা পরিষেবা সচল রাখতে নয়া উদ্যোগ, ইন্দোরে চালু ওলা অ্যাম্বুল্যান্স ]

পাশাপাশি তিনি এও বলেছেন, যেসব হাসপাতালগুলি রোগীদের সঙ্গে এমন আচরণ করছে, তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করতে হবে। হাসপাতালের সুপারিন্টেনডেন্টদের তিনি করোনা আক্রান্ত নন, এমন রোগীদেরও উপযুক্ত চিকিৎসা করার আবেদন জানান তিনি। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “এটি সবার জন্য পরীক্ষার সময়। যেসব রোগী সত্যিই অসুস্থ, জরুরি চিকিৎসার প্রয়োজন, তাঁদের হাসপাতালে পৌঁছাতে খুব অসুবিধে হচ্ছে। রক্ত সঞ্চালন, ডায়ালাইসিসের মতো প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে কোনও অজুহাত দেখানো উচিত নয়।” এমনকী টেলিফোনে বা ডিজিটাল ব্যবস্থার মাধ্যমেও রোগীদের সেবা দেওয়া যেতে পারে বলে জানান তিনি।

[ আরও পড়ুন: লকডাউনের মধ্যেও যৌন লালসার শিকার দৃষ্টিহীন প্রৌঢ়া, দায়ের অভিযোগ ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement