৫ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ২১ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নন্দিতা রায়, নয়াদিল্লি: পক্ষ কিংবা বিপক্ষ নয়, সংসদে নিরপেক্ষ থেকে দেশের মানুষের স্বার্থে কাজ করাটাই বড় কথা। তাঁর দ্বিতীয় জমানার প্রথম সংসদ অধিবেশনের শুরুতেই বলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

[আরও পড়ুন: বিজেপিতে অর্জুন-আত্মীয় সুনীল সিং, যোগদান গাড়ুলিয়া পুরসভার ১৬ কাউন্সিলরেরও]

সপ্তদশ লোকসভার এই প্রথম অধিবেশনে নজর থাকবে অনেক গুলি বিষয়ের উপর। বাজেট থেকে শুরু করে তিন তালাক বিল এবং তা ছাড়াও আরও অনেকগুলি মূল বিল পেশ হওয়ার কথা এই অধিবেশনে। সেই সঙ্গে সাংসদ হিসাবে অমিত শাহর শুরুয়াত ও হবে এই অধিবেশনেই। তাই মোদি সরকারের দ্বিতীয় জমানার এই অধিবেশনের উপর অনেকগুলি কারণেই নজর থাকবে। অধিবেশনের শুরুতেই তাই বিরোধীদের উদ্দেশে বিশেষ বার্তা দিয়েছেন মোদি। তিনি আরও জানিয়েছেন, সংসদে বিরোধীরা যেন নিজেদের সংখ্যা নিয়ে একেবারেই না ভাবেন। সংসদে বিরোধীদের সক্রিয়তাই বেশি জরুরি।

উল্লেখ্য ,সংসদে মোট আসনের দশ শতাংশ অর্থাৎ ৫৫টি আসন সংগ্রহ করতে পারলে তবেই বিরোধী দলনেতা তৈরি করতে পারত কংগ্রেস। কিন্তু, তা না হওয়ায় কোনও প্রধান বিরোধী দল নেই সংসদে। সেই কথাই মনে করিয়ে দিয়ে এদিন সংসদে বিরোধীদের সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণের কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, “বিরোধীদের প্রতিটি শব্দ দামি। তাঁরা যেন সক্রিয়ভাবে কক্ষের কাজে অংশ নেন।” সপ্তদশ লোকসভায় অবশ্য আরও অনেক কিছুই প্রথমবার হচ্ছে। যেমন এই প্রথম ৭৮ জন মহিলা সাংসদ রয়েছেন লোকসভায়। সেকথা উল্লেখ করে মোদি এদিন বলেন, “স্বাধীনতার পর থেকে এই প্রথম এতজন মহিলা সাংসদ যোগ দিলেন সংসদে। আশা রাখছি তাঁদের নিয়ে নতুন স্বপ্ন আর অনেক নতুন শুরু করতে পারব।”

[আরও পড়ুন: ‘প্রতিদিন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারব না’, এনসেফেলাইটিস নিয়ে ক্ষুব্ধ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর মন্তব্য]

মোদি এদিন জানান, “বহু বছর পর কোনও দল বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে এভাবে দ্বিতীয় বার দেশের ক্ষমতায় এল। মানুষ আমাদের দ্বিতীয়বার তাঁদের সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন। আমি সব দলের সাংসদদের অনুরোধ করব জনতার সেই সিদ্ধান্তকে সম্মান জানানোর।” এদিন সংসদে সাংসদ হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন মোদি, রাজনাথ সিং, অমিত শাহ, স্মৃতি ইরানি, নীতিন গড়কড়ি, রাহুল গান্ধী,সাধ্বী প্রজ্ঞা এবং অন্যান্য সাংসদরা। বাংলা থেকে বাবুল সুপ্রিয় এবং দেবশ্রী চৌধুরীও এদিন শপথ নেন। বাবুল ইংরেজিতে শপথবাক্য পাঠ করেন। দেবশ্রী শপথ নেন বাংলায়। সাধ্বী প্রজ্ঞা শপথ নেওয়ার সময় নিজের সরকারি নাম ব্যবহার করেননি বলে অভিযোগ তোলেন বিরোধীরা। যদিও, পরে সংস্কৃততে নিজের সরকারি নামেই শপথ নেন সাধ্বী । উল্লেখ্য, আগামী ৫ জুলাই সকাল ১১টার সময় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বাজেট পেশ করবেন সংসদে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং