৫ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ২১ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দীপাঞ্জন মণ্ডল,নয়াদিল্লি: জল্পনা অনেক দিন থেকেই ছিল। অবশেষে সেই জল্পনাতেই শিলমোহর পড়ল। বিজেপিতে যোগ দিলেন নোয়াপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক সুনীল সিং। তাঁর সঙ্গে যোগ দিয়েছেন গাড়ুলিয়া পুরসভার ১৬ জন কাউন্সিলর। ফলে গাড়ুলিয়া পুরসভা এবার তৃণমূলের হাতছাড়া হতে চলেছে।

[আরও পড়ুন: ‘প্রতিদিন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারব না’, এনসেফেলাইটিস নিয়ে ক্ষুব্ধ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর মন্তব্য]

অর্জুন সিংয়ের বিজেপি যোগদান, এবং লোকসভা ভোটে বিজেপির ভাল ফলের পর থেকেই উত্তর ২৪ পরগনা জেলাজুড়ে তৃণমূলে ভাঙন শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছেন বীজপুরের তৃণমূল বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়। তারপরই জল্পনা ছড়িয়েছিল, অর্জুন সিংয়ের আত্মীয় সুনীল সিংও এবার নাম লেখাবেন বিজেপিতে। সেই সঙ্গে ভাঙন ধরবে গাড়ুলিয়া পুরসভাতেও। তেমনটাই হল। রবিবারই সদলবলে দিল্লি উড়ে গিয়েছিলেন সুনীল। সোমবার দিল্লির কেন্দ্রীয় সদর দপ্তরে কৈলাস বিজয়বর্গীয়, দিলীপ ঘোষ এবং মুকুল রায়ের উপস্থিতিতে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখান সুনীল। তাঁর সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দেন মোট ১৬ জন কাউন্সিলর। গাড়ুলিয়ার পুরপ্রধান সুনীল সিং ছাড়াও উপ পুরপ্রধান সুব্রত মুখোপাধ্যায়ও যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। ফলে, বকলমে গাড়ুলিয়া পুরসভার দখল পেতে চলেছে বিজেপি।

[আরও পড়ুন: তলোয়ার হাতে পুলিশকে তাড়া, উত্তেজনা দিল্লির রাজপথে]

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাঁচড়াপাড়ায় যে জনসভা করেছিলেন, তার ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিলেন সুনীল সিং৷ এছাড়া নৈহাটিতে মুখ্যমন্ত্রীর ধরনা কর্মসূচিতেও সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে দেখা গিয়েছে তাঁকে৷ দলের তরফে তাঁর দায়িত্ব বাড়ানো হয়েছিল, উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের আহ্বায়ক করা হয় তাঁকে৷ লোকসভা নির্বাচনের আগে অর্জুন সিংয়ের প্রস্থানের পর দলের মধ্যে যথেষ্ট গুরুত্ব বাড়ানো হয় নোয়াপাড়ার বিধায়কের৷ এমনকী, তিনি নিজেও দলের প্রতি আনুগত্য দেখিয়েছিলেন৷ জানিয়েছিলেন, তিনি তৃণমূলেই রয়েছেন৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেই রয়েছেন৷ কিন্তু, হঠাৎ সুনীল সিংয়ের দলবদল তৃণমূলের কাছে যে বড়সড় ধাক্কা সেকথা বলাই বাহুল্য।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং