BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

একঘরে চিন, পরমাণু ক্লাবে ভারতের প্রবেশ এখন সময়ের অপেক্ষা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 9, 2016 1:19 pm|    Updated: June 9, 2016 1:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুইজারল্যান্ড, আমেরিকা ও মেক্সিকোর সমর্থন পাওয়ার পর নিউক্লিয়ার সাপ্লায়ার গ্রুপে ভারতের অন্তর্ভূক্তির পথ আরও প্রশস্ত হয়ে গেল বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞদের একাংশ৷ ভারত-মার্কিন যৌথ বিবৃতিতে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, “মিসাইল টেকনোলজি কন্ট্রোল রেজিম-এ (এমটিসিআর) ভারতের প্রবেশকে অবিলম্বে সমর্থন করছে আমেরিকা৷ প্রেসিডেন্ট ওবামা নিউক্লিয়ার সাপ্লাই গ্রুপ বা এনএসজি-র সদস্য পদের জন্য ভারতকে সমর্থন জানাচ্ছেন৷”

এমটিসিআর-এর সদস্যপদ পেয়ে গেলে উচ্চ প্রযুক্তির ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন কেনা বা তৈরির ক্ষেত্রে আর কোনও বাধা থাকবে না ভারতের৷ ৩৪টি দেশের ওই ‘ক্লাব’-এর সদস্যরা নিজেদের মধ্যে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ক্ষেপণাস্ত্র সংক্রান্ত প্রযুক্তির আদান-প্রদান করতে পারবেন৷ শুধু ক্ষেপণাস্ত্র নয়, মহাকাশবিজ্ঞান সংক্রান্ত বা মহাবিশ্বে যে কোনও অভিযান চালানোর সময়ও ভারত ওই ৩৪ দেশের কাছ থেকে প্রযুক্তিগত সাহায্য পাবে৷ সবচেয়ে বড় কথা হল, ওই গ্রুপে চিন নেই৷ যে চিন এনএসজি-তে ভারতের প্রবেশের পথে সবথেকে বড় বাধা৷ ২০০৮-এর মতো কয়েকটি দেশের আড়ালে থেকে নয়, বেজিং এবার খুল্লামখুল্লা জানিয়ে রেখেছে, এনএসজি-তে ভারতের প্রবেশ তারা কোনওমতেই বরদাস্ত করবে না৷ যদিও চিনের এই অনড় অবস্থান পাল্টাতে ওয়াশিংটন থেকে একটি টেলিফোন কলই যথেষ্ট বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা৷

তার উপর এখন চিনের সঙ্গে আমেরিকার সম্পর্ক বুশ জমানার মতো নেই৷ ওবামার আমলে অর্থনৈতিক বাধ্যবাধকতায় চিন-আমেরিকা দ্বৈরথ খানিকটা হলেও কমেছে৷ অন্যদিকে ভারত এখন উদীয়মান অর্থনীতির দেশ৷ মোদির নেতৃত্বে একের পর এক আন্তর্জাতিক শক্তি ভারতের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে৷ কারণ, তারা স্পষ্টই জানে ভারতের বাজার বিনিয়োগের জন্য এখন সবচেয়ে তাজা৷ সবমিলিয়ে আর কয়েকদিনের মধ্যে ভিয়েনা ও তারপর সিওলে আমেরিকা-চিন ও ভারতের মধ্যে সম্পর্ক কোন জায়গায় গিয়ে দাঁড়ায়- সেদিকেই নজর থাকবে আন্তর্জাতিক দুনিয়ার৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement