BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

হানিপ্রীতের পর এবার উধাও বিপাসনা, কী চলছে ডেরার অন্দরে?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 18, 2017 3:13 am|    Updated: September 20, 2017 7:25 am

After Honeypreet, Vipassana goes missing from Ram Rahim's Dera

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একে হানিপ্রীতে রক্ষে নেই, এবার দোসর বিপাসনা! রাম রহিমের জেলযাত্রার পর পাঁচকুলায় হিংসার জেরে ধরপাকড় অব্যাহত হয়েছে। হানিপ্রীতের খোঁজে  হন্যে হয়ে ঘুরছে পুলিশ। এরই মাঝে এবার উধাও হয়ে গেলেন সাচা সওদার ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারপার্সন বিপাসনা  ইনসান।

[রাম রহিম জেলে, কিন্তু অভিনব কায়দায় ‘বাবা’র মহিমা প্রচারে ব্যস্ত ডেরা]

রাম রহিমের গ্রেপ্তারির পর কয়েকশো কোটি টাকার ডেরা সাম্রাজ্য যেন এখন শ্মশান! হাওয়া হয়ে গিয়েছে ডেরার আভিজাত্য। নেই ভক্তদের ভিড়। তার উপর গ্রেপ্তারি আর পুলিশের ভয়ে ডেরা ছেড়ে পালিয়ে বাঁচার চেষ্টা করছেন অনুগামীরা। লুক আউট নোটিস জারি করেও জালে তোলা যায়নি বাবাজির পালিতা ‘কন্যা’ হানিপ্রীতকে। এবার ডেরা ছেড়ে চম্পট দিলেন ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারপার্সন বিপাসনা। রাম রহিমের পর দ্বিতীয় মুখ হিসেবে নিজেকে কয়েকদিন আগেই দাবি করেছিলেন তিনি। কারণ, তিনি ছিলেন ডেরার ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারপার্সন। হানিপ্রীতকে পুলিশ খোঁজার পর তিনি আবার দাবি করেন, আশ্রমে কোনও জায়গা নেই বাবাজির পালিত কন্যার। এবার সিরসায় ডেরা সাচা সওদার সদর ঘাঁটি থেকে গা ঢাকা দিলেন বিপাসনা। পুলিশ ও ডেরা সূত্রে খবর, বিপাসনার মোবাইল ফোন বন্ধ। তাঁর খবর অনুগামীরাও জানেন না। শোনা যাচ্ছে, গ্রেপ্তারির ভয়ে তিনি লোকচক্ষুর আড়ালে চলে গিয়েছেন।

ডেরায় গুরমিত রাম রহিম সিং ও হানিপ্রীত ইনসানের পর অত্যন্ত ক্ষমতাশালী ছিলেন বিপাসনা। তাঁর কাছেও বাবাজির কাজকর্মের গোপন খবর পাওয়া যেত বলে অনুমান পুলিশের। ডেরা অনুগামীদের দাবি, শুক্রবার বিপাসনাকে শেষ দেখতে পাওয়া গিয়েছিল। কিন্তু, তিনিই এবার বেপাত্তা! শুধু তাই নয়, বাবাজির আরেক ঘনিষ্ঠ ও ডেরার মুখপাত্র আদিত্য ইনসানকেও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তিনিও ডেরা ছেড়ে অন্যত্র গা ঢাকা দিয়েছেন বলে অভিযোগ।

[সিরসাতেই লুকিয়ে পুলিশের চোখে ধুলো হানিপ্রীতের!]

এদিকে, হরিয়ানা পুলিশের ধরপাকড় অব্যাহত। রাম রহিমের সাজা ঘোষণার পর তাণ্ডব চালানোর অভিযোগে ডেরার কর্তা প্রদীপ গোয়েল ইনসান সহ দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশের দাবি, প্রদীপের সঙ্গে হানিপ্রীতের ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল। তাঁর কাছে বাবাজির পালিত কন্যার খবর পাওয়া যেতে পারে বলে ধারণা তদন্তকারীদের। তবে বিপাসনাকেও পুলিশ খুঁজছে। এই বিষয়ে পুলিশ কর্তাদের দাবি, ডেরার গুরুত্বপূর্ণ কাগজ নিয়ে চম্পট দিয়ে থাকতে পারেন বিপাসনা। তাই তিনি কোথায় কোথায় যেতে পারেন এখন সেটাই নতুন করে ভাবাচ্ছে হরিয়ানা পুলিশকে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে