১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সোমনাথ রায়, নয়াদিল্লি: জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বুধবার বিজেপিতে যোগদান করলেন কলকাতা কর্পোরেশনের প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ আর গায়ে গেরুয়া চাদর চড়ানোর পরেই, পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে সদ্য প্রাক্তন দলকে বেকায়দায় ফেললেন বেহালা পূর্বের তৃণমূল বিধায়ক৷ সাফ জানালেন, ‘পঞ্চায়েত নির্বাচনে যেভাবে বিরোধীদের মনোনয়ন জমা দিতে দেওয়া হয়নি, আগেই দলের অন্দরে তার বিরোধিতা করেছিলাম৷’

[ আরও পড়ুন: বাথরুমে মিলনে নারাজ স্ত্রী, ক্ষোভে মারধরের অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে]

এদিন দীর্ঘদিনের বন্ধু বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ উত্তরীয় এবং দলের সদস্যতা কার্ড দিয়ে তাঁকে স্বাগত জানান বিজেপি নেতা মুকুল রায়৷ এরপরই শোভনের প্রশংসায় মুখ খোলেন মুকুল রায়৷ তিনি জানান, বাংলার রাজনীতিতে শোভন চট্টোপাধ্যায় একটি অন্যতম নাম৷ ৩৪ বছর ধরে তৃণমূলের হয়ে কোনও না কোনও পদে তৃণমূলের জনপ্রতিনিধি হিসাবে কাজ করেছেন তিনি৷ কলকাতা কর্পোরেশনের মেয়রও ছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ায়, তাঁর উল্লেখযোগ্য অবদান রয়েছে৷ এখানেই শেষ নয়, শোভনকে পাশে বসিয়েই তৃণমূলকে আক্রমণ শানান মুকুল৷ হুঁশিয়ারির সুরে জানান, বামেদের মতো বাংলায় তৃণমূলেও ক্ষয় শুরু হয়েছে৷ কলকাতা কর্পোরেশনের নির্বাচনে বিজেপি জিতবেই৷ এমনকী, বিধানসভা নির্বাচনে মমতার দল বিরোধীর মর্যাদাও পাবে না৷

[ আরও পড়ুন: জল্পনার অবসান, বিজেপিতে যোগ দিলেন শোভন-বৈশাখী ]

শোভনের পদ্ম শিবিরে যোগদানের পরই আক্রমণ শানিয়েছেন রত্না চট্টোপাধ্যায়৷ কলকাতার প্রাক্তন মেয়রের স্ত্রী জানান, ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরেই ওঁর উত্থান৷ তাঁর হাত ধরেই রাজনীতিতে আসা৷ তাঁর দয়াতেই কাউন্সিলর, মন্ত্রী ও মেয়র হওয়া৷ ২৩ বছর ধরে আমি ওর সঙ্গে সংসার করেছি৷ আমাকে ছেড়ে যখন ও চলে যায়, তখন থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের পাশে রয়েছেন৷ দিদি ওকেও বারবার বলেছিলেন, ফিরে আসতে৷ কিন্তু উনি আসেননি৷ তৃণমূলে উনি অনৈতিক কাজের সমর্থন পাচ্ছিলেন না, বিজেপিতে পেয়েছেন, তাই গিয়েছেন৷’’ এখানেই শেষ নয়, একযোগে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কেও একহাত নেন শোভনবাবুর স্ত্রী৷ সাফ জানান, ‘‘তৃণমূলের কোনও মিটিং, মিছিলে আমি বৈশাখীকে দেখিনি৷ বিজেপি নিয়েছে, সেটা ওদের ব্যাপার৷ বৈশাখী সম্পর্কে মুখ খোলার মানসিকতা আমার নেই৷ ওকে দেখে যদি বিজেপি নেতারা মানসিক শান্তি পায়, তাহলে কিছু বলার নেই৷’’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং