১৬ ফাল্গুন  ১৪২৬  শনিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

বিতর্ক এড়াতে সিদ্ধান্ত বদল IRCTC’র, দক্ষিণের ট্রেনের মেনুতে ফের ফিরছে কেরলের খাবার

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 22, 2020 3:21 pm|    Updated: January 22, 2020 3:34 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্ক এড়াতে বাধ্য হয়ে অবস্থান বদল করল আইআরসিটিসি (IRCTC)। মঙ্গলবারই কেরলের খাবারদাবার বাদ দেওয়া হচ্ছে বলেই নোটিসে উল্লেখ করেছিল ভারতীয় রেল। তবে তা নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক। অনেকেই বলেন, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতার জেরে কেরলের খাবারদাবারকে ‘ব্রাত্য’ করে দেওয়া হয়েছিল। আবারও দক্ষিণের ট্রেনে মিলবে দক্ষিণী খাবারদাবার। তবে বুধবার আরও একটি নোটিস জারি করে জানিয়ে দেওয়া হয় দক্ষিণের ট্রেনে ফের ফিরছে কেরলের সুস্বাদু খাবারদাবার।

মঙ্গলবারই আইআরসিটিসি (IRCTC) নোটিস জারি করে। ওই নোটিসে জানিয়ে দেওয়া হয় দক্ষিণ রেলের ট্রেনগুলিতে পাওয়া যাবে না কেরলের কোনও বিখ্যাত খাবারদাবার। সেই তালিকায় ছিল পুট্টু, কোঝুকাট্টা, উনিআপ্পাম, নিয়াপ্পাম, সুখিয়ান কাদালা কারি, ডিমের কারি, আপ্পাম, কলা ভাজার মতো একাধিক পদ। কেরলের এই পদগুলি বাদ গিয়ে সেই জায়গায় আসবে সামোসা, কচুরি, আলুর বড়া, স্টাফড পকোড়া। এছাড়াও জানানো হয় যে, ট্রেনে দক্ষিণ ভারতীয় যেসব স্ন্যাকস পাওয়া যাবে। তার দামও বাড়বে অনেকটাই। যেমন ৯ টাকায় যে স্ন্যাকস পাওয়া যায়। বেড়ে তার দাম হবে ১৫ টাকা। আবার দামের নিরিখে উত্তর ভারতীয় খাবারের দাম অনেকেটাই কম। সামোসা, কচুরি, আলুর বড়া কিনতে গেলে খরচ করতে হবে মাত্র ২০ টাকা। কোনও যাত্রী যদি ইডলি খান তবে তাঁকে বাধ্যমূলকভাবে তাঁকে বড়া কিনতে হবে বলেও জানানো হয়।

[আরও পড়ুন: সাধারণতন্ত্র দিবস থেকে প্রতিদিন স্কুলের প্রার্থনায় পড়তে হবে সংবিধানের প্রস্তাবনা]

এই নোটিস জারি হওয়ার পরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন এরনাকুলামের সাংসদ হিবি ইডেন। তিনি তৎক্ষণাৎ রেলমন্ত্রী পীয়ূষ গোয়েলকে চিঠি লেখেন। কেন দক্ষিণকে বাদ দিয়ে উত্তরের খাবারদাবারে এত গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে, ওই চিঠির মাধ্যমে সেই প্রশ্ন করেন তিনি। নেটিজেনরাও দক্ষিণী খাবার বাদ ঘটনায় রীতিমতো বিরক্ত হন। কেরল সরকার সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে সমর্থন করেনি। তার জেরে মোদি সরকারের সঙ্গে বিরোধিতায় জড়িয়ে পড়ে কেরল। সেই আগ্রাসনের জেরেই আইআরসিটিসি ইচ্ছাকৃতভাবে দক্ষিণী খাবারকে ট্রেনের মেনু থেকে বাদ দিয়েছে বলেই দাবি নেটিজেনদের একাংশের।

বিতর্ক এড়াতে অবস্থান বদল করল আইআরসিটিসি (IRCTC)। বুধবার জানিয়ে দেওয়া হয় রেলের ঐতিহ্য মেনে দক্ষিণের ট্রেনগুলিতে দেওয়া হবে দক্ষিণী খাবারদাবার। এরনাকুলামের সাংসদ হিবি ইডেন টুইট করে একথা জানান। তিনি লেখেন, “রেল কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত বদল করেছে। ফের ফিরছে দক্ষিণী খাবারদাবার। এছাড়া আমরা বোনাস হিসাবে পেয়েছি মাছও।”

An Images
An Images
An Images An Images