২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার


সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগামী বছরের মার্চের মধ্যেই রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়া ও ভারত পেট্রোলিয়াম বিক্রি করে দেওয়া হবে। শনিবার একথাই জানালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। বিগত কয়েকমাস ধরেই প্রচণ্ড টানাপোড়েন চলছে জাতীয় বিমান সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়ায়। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছয় যে প্রায় ৫৮ হাজার কোটি টাকা দেনায় থাকা কোম্পানিটিকে বিলগ্নিকরণের সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। বিষয়টি তাই সবার জানাই ছিল। শুধু কবে এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে সে সম্পর্কে কোনও খবর ছিল না। কিন্তু, ভারত পেট্রোলিয়াম সম্পর্কে আগাম কোনও খবর না থাকায় বিষয়টিতে অবাক হয়েছেন অনেকে।

[আরও পড়ুন: অবস্থান বদল কেরল সরকারের, শবরীমালার গেটে ঢুকতে বাধা ১০ মহিলাকে]

শনিবার একটি সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা এই আশা নিয়েই এগোচ্ছি যে চলতি অর্থবর্ষের মধ্যেই বিষয়টি শেষ করতে পারব। বাস্তবও সেইদিকে ইঙ্গিত দিচ্ছে। আর এয়ার ইন্ডিয়ার জন্য বিনিয়োগকারীদের মধ্যে যথেষ্ট উৎসাহও আছে।’ এই দুটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বিক্রি করে এই অর্থবর্ষে কেন্দ্রীয় সরকার এক লক্ষ কোটি টাকা সরকারি কোষাগারে ঢোকাতে চায় বলেও জানান তিনি।

[আরও পড়ুন: খাটের সঙ্গে হাত-পা বেঁধে লাগাতার ধর্ষণ, নাবালক দাদার যৌন লালসার শিকার কিশোরী]

তিনি আরও দাবি করেন, এয়ার ইন্ডিয়া নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ রয়েছে। আন্তর্জাতিক রোড শোতে তার প্রমাণও পাওয়া গিয়েছে। আসলে দেশকে আর্থিক মন্দার হাত থেকে বাঁচাতে সবরকম পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। যে যে কারণে সমস্যা হচ্ছিল তা চিহ্নিত করা হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি এই পরিস্থিতির হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার চেষ্টাও চলছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রের সঙ্গে যুক্ত ভারতীয় শিল্পপতিরা নতুন করে দেশীয় শিল্পে বিনিয়োগ টানার কাজও শুরু করে দিয়েছেন।

 আর্থিক বিশেষজ্ঞদের মতে, ভারতের তেলের বাজার বহুজাতিক সংস্থাগুলির জন্য খুলে দিতে বদ্ধপরিকর মোদি সরকার। এক্ষেত্রে সরকারের যুক্তি, দীর্ঘদিন থেকে ঘরোয়া বাজারের তেল ব্যবসা রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাগুলির দখলে। যার ফলে এই ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতার অবকাশ কম। ভারতের বাজারে বিদেশি সংস্থা প্রবেশ করলে সুস্থ প্রতিযোগিতার পরিবেশ তৈরি হবে। যার ফলে সামগ্রিকভাবে এই ক্ষেত্র লাভবান হবে। তাই গত অক্টোবর মাসে বিপিসিএলের ৫৩.৩ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং