BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

বেতন না পেয়ে অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দিলেন এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মীরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 8, 2018 9:05 pm|    Updated: June 8, 2018 9:05 pm

Air India employees to embark on mass non-cooperation over salary delay

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেতন না পেয়ে এবার অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দিলেন এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মীরা৷ অভিযোগ, জুন মাসের আট দিন কেটে গেলেও এখনও মে মাসের বেতন পাননি এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মীরা৷ আগাম কোনও ঘোষণা ছাড়া বেতন আটকে যাওয়ায় চূড়ান্ত সমস্যায় পড়েছেন ২৬ হাজার ৯৭৮ জন কর্মী৷ মে মাসের বেতন না পেয়ে এবার সরাসরি যাত্রীদের সঙ্গে অসহযোগিতার ডাক দিয়েছেন এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মীরা৷ রাষ্ট্রায়ত্ত উড়ান সংস্থার কর্মীদের এহেন বিদ্রোহের জেরে রীতিমতো নাকাল হচ্ছেন যাত্রীরা৷ কর্মীদের দাবি, অবিলম্বে তাঁদের বেতন দেওয়ার ব্যবস্থা না করা হলেও আগামী দিনে আরও বড় আন্দোলনের হুঁশিয়ারিও দিয়ে রাখা হয়েছে৷ তবে, মাসের শুরুর আট দিন পরও কেন কর্মীদের বেতন দেওয়া হল না, তা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন সংস্থার কর্তারা৷

এয়ার ইন্ডিয়া কর্মী ইউনিয়ন আইসিপিএ’র তরফে হুমকি দেওয়া হয়েছে, কর্মীদের পরিশ্রমের টাকা মেটানো না হলে যাত্রীদের সঙ্গে অসহযোগিতার পাশাপাশি, কর্মবিরতিও ডাকা হতে পারে৷ ইতিমধ্যেই সংগঠনের তরফে উড়ান পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত বেশ কয়েকটি কেন্দ্রীয় সংস্থাকে চিঠি পাঠিয়ে তাদের অসহযোগিতার কথা জানানো হয়েছে৷ দ্রুত বেতন দেওয়া না হলে বড়সড় আন্দোলনের ডাকও দেওয়া হয়েছে বলে খবর৷

[পুরুলিয়া কাণ্ডে জোর ধাক্কা বিজেপির, সিবিআই তদন্তের আরজি খারিজ সুপ্রিম কোর্টে]

কর্মীদের অভিযোগ, জুন মাসের শুরুর এক সপ্তাহ কেটে গেলেও এখনও কর্মীদের বেতন মেটায়নি এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ৷ মে মাসের বেতন কবে পাওয়া যাবে, সে সম্পর্কে কিছুই জানাতে পারেনি এয়ার ইন্ডিয়া৷ ফলে, মাসভর শ্রম দেওয়ার পর বেতন না পাওয়ায় চূড়ান্ত দুর্ভোগে এয়ার ইন্ডিয়ার প্রায় কয়েক হাজার কর্মী৷

গত এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে নগদ অর্থের জোগান কমে যাওয়ার কারণে কর্মচারীদের বেতন দিতে দেরি হয়ে যাচ্ছে বলে এয়ার ইন্ডিয়ার এক কর্তা সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন৷ প্রশ্ন উঠছে, অর্থের জোগান না থাকার অজুহাত দিয়ে কেন বেতন আটকে দিল কর্তৃপক্ষ? সংস্থার লাভ-লোকসানের দায়ও কী এবার কর্মীদের ঘাড়ে চাপিয়ে দিতেই কি কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্ত? তাহলে, বেতন বিভ্রাট নিয়ে আগাম কেন জানানো হল না কর্মীদের? প্রশ্ন তুলছেন কর্মীদের একাংশ৷

প্রতি মাসে ৩০-৩১ তারিখে অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে বেতন পান কর্মীরা৷ কিন্তু, জুনের সাত তারিখ হয়ে গেলেও বেতন না মেলায় চূড়ান্ত সমস্যায় পড়েছেন বিমান কর্মীরা৷ মাসের শুরুতে বেতন পাওয়ার অভ্যাস ও ইএমআইয়ের চাপ-সহ সংসার চালানো দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে কর্মীদের কাছে৷

[অমিতের সাক্ষাতে মিলছে ফল, জোটে থাকারই ইঙ্গিত শিব সেনার]

এমনিতেই, আন্তর্দেশীয় উড়ান পরিষেবা দিতে গিয়ে ভরতুকির বহর বেড়েছে৷ ফলে, দিনের দিন বেড়েছে ক্ষতির অঙ্ক৷ এয়ার ইন্ডিয়াকে চাঙ্গা করতে দরপত্র ছাড়ার প্রস্তাবে সম্মতিও দিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র৷ কিন্তু, রাষ্ট্রায়ত্ত এই উড়ান সংস্থাটি কেনার পক্ষে জোরদার কোনও সওয়াল এখনও পাওয়া যায়নি৷ ফলে, পরিস্থিতি আরও যে বেগতিক হতে চলেছে, তা কিছুটা হলেও টের পেয়েছিলেন কর্মীরা৷ পরিসংখ্যান বলছে, এয়ার ইন্ডিয়ায় চাকরি করেন মোট ২৬,৯৭৮ জন। বিমানের সংখ্যা ১১৫। অর্থাৎ, গড়ে বিমান-পিছু কর্মীর সংখ্যা ২৩৫ জন। ইন্ডিগোতে বিমান পিছু কর্মীর সংখ্যা ১১১, জেটে ১৪২, স্পাইসজেটে ১৪০। বিমানের অনুপাতে কর্মী সংখ্যা ও খরচের বহরও বেশি৷ ফলে, লোকসানে চলতে থাকা এই সংস্থার এখন মূল লক্ষ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে ব্যায় সঙ্কোচন৷ আর সেই লক্ষ্যেই কি বেতন আটকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত? উঠছে প্রশ্ন৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে