BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজধানীর বাতাসে বিপজ্জনক ভাবে বাড়ছে বিষ, উদ্বিগ্ন পরিবেশবিদরা

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: October 18, 2018 7:25 pm|    Updated: October 18, 2018 7:25 pm

Air quality in Delhi continues to remain poor

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সবে অক্টোবর৷ শীত পড়তে এখনও ঢের বাকি৷ কিন্তু, শীত নামার আগেই রাজধানীতে চড়তে শুরু করেছে বায়ুদূষণের মাত্রা৷ সাধারণ দূষণের মাত্রা ছাড়িয়ে ক্রমাগত বিপজ্জনক হয়ে উঠছে রাজধানীর বাতাসে বিষের পরিমাণ৷ ইতিমধ্যেই রাজধানীর আকাশে দেখা দিয়েছে ধোঁয়াশা৷ বাতাসে বাড়ছে ক্ষতিকর জীবাণুর পরিমাণ৷ রাজধানীর পাশাপাশি দূষণের প্রভাব পড়েছে পাঞ্জাব ও হরিয়ানায়৷ অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে দূষণের মাত্রা বাড়তে থাকায় উদ্বেগ বাড়ছে পরিবেশ কর্মীদের মধ্যে৷

[‘হিন্দুরা আমাকে এখন আর নির্বাচনী প্রচারে ডাকেন না’]

বৃহস্পতিবার উৎসবের আবহের মধ্যে বায়ুদূষণ সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট প্রকাশ্যে এসেছে৷ এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের তথ্য রিপোর্ট বলছে, গত বছরের তুলনায় দৃশ্যমানতা বেশ খানিকটা বেড়েছে৷ এখনও পর্যন্ত বাতাসে বস্তুকণার পরিমাণ দাঁড়িয়ে ২৭২ পয়েন্টে৷ গড়ে ২২৪ থেকে ২৭২ পয়েন্টের মধ্যেই ঘোরাফেরা করছে বাতাসে বস্তুকণার পরিমাণ৷ পরিসংখ্যান বলছে, বাতাসে বস্তুকণার পরিমাণ ০ থেকে ৫০ পয়েন্ট পর্যন্ত থাকলে ‘ভাল’ বলে চিহ্নিত করা যায়৷ ৫১ থেকে ১০০ ‘সন্তোষজনক’, ১০১ থেকে ২০০ ‘মধ্যম’ মানের ও ২০১ থেকে ৩০০ খারাপ ও ৩০১ থেকে ৪০০ পর্যন্ত ‘বিপজ্জনক’ এবং এর ঊর্ধ্বে হলে অতিবিপজ্জনক৷ শুধু রাজধানীই নয়, বাতাসে বিষের পরিমাণ বিপজ্জনক মাত্রা ছুঁয়েছে গুরুগ্রাম (২৫২), লখনউ (২৪৭), কানপুর (২৪৭), আগ্রা (২৩৬), পাটনা (২০৯)৷ ফলে, অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে বাতাসে বিষ ‘বিপজ্জনক’ মাত্রা ছুঁয়ে ফেলে চিন্তা বাড়ছে রাজধানী ও পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দাদের৷

[মোবাইলে আধার কেওয়াইসি নিয়ে ফের বড় ঘোষণা কেন্দ্রের]

গত ১৪ জুলাই প্রকাশিত সেন্টার ফর সায়েন্স অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টের এক সমীক্ষায় পাওয়া তথ্য বলছে, ২০১৬ সালে রাজধানীতে বায়ুদূষণের ফলে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১৫ হাজারের কাছাকাছি মানুষের৷ সাংহাইয়ের মৃত্যুর সংখ্যা ১৭ হাজার ৬০০ জন৷ একই কারণে প্রায় ১৮ হাজার ২০০ জনের মৃত্যু হয়েছে বেজিংয়ে৷ সমীক্ষা অনুযায়ী বায়ুদূষণে বিশ্বে মৃত্যুর নিরিখে শীর্ষ দুটি স্থানই দখল করেছে চিনের দুই শহর৷ প্রথম স্থানে রয়েছে বেজিং৷ দ্বিতীয় স্থানে সাংহাই৷ বেজিং ও সাংহাইয়ের পর তৃতীয় স্থানেই রয়েছে দিল্লি৷

[রাম মন্দির তৈরিতে সুনির্দিষ্ট আইন হোক, কেন্দ্রকে আরজি মোহন ভাগবতের]

বিশ্বের নিরিখে দিল্লি তৃতীয় স্থানে থাকলেও, দেশের হিসাবে প্রথমে রয়েছে রাজধানীর নাম৷ দ্বিতীয় স্থানেই মুম্বই৷ তার ঠিক পরেই তৃতীয় স্থানে রয়েছে কলকাতা৷ যুগ্মভাবে সমীক্ষা রিপোর্টে চতুর্থ স্থান পেয়েছে বেঙ্গালুরু ও চেন্নাই৷ রিপোর্টে বলা হয়েছে, বায়ুদূষণের সমস্যা সবচেয়ে বেশি রয়েছে চিন, ভারত, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে৷ ফলে, অক্টোবরের মাঝামাঝিতে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের তথ্য দেখে চূড়ান্ত উদ্বেগে রাজধানীর পরিবেশ কর্মীরা৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে