BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আইনি লড়াই শেষ, ২০ মার্চ ভোরেই নির্ভয়ার চার ধর্ষকের ফাঁসি

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 19, 2020 4:21 pm|    Updated: March 19, 2020 6:18 pm

An Images

দীপাঞ্জন মণ্ডল: অবশেষে আট বছরের অপেক্ষার অবসান। সব জারিজুরি শেষ। ২০ মার্চ, শুক্রবার সকাল সাড়ে পাঁচটায় ফাঁসি হবে নির্ভয়ার চার ধর্ষকের। চার অপরাধীর সমস্ত আরজি খারিজ করে দিল দিল্লি পাতিয়ালা হাউস কোর্ট ও সুপ্রিম কোর্ট। বহাল রাখল পুরনো মৃত্যু পরোয়ানাই। যদিও চার অপরাধীর একের পর এক আরজি ঘিরে দিনভর চলে টানাপোড়েন। সু্প্রিম কোর্ট পর্যন্ত মামলার জল গড়ায়। তবে দিনের শেষে কোনও আরজিই ধোপে টিকল না। পাতিয়ালা হাউস কোর্ট জানিয়ে দেয়, তিহার জেলে সকাল সাড়ে পাঁচটায় ফাঁসি হচ্ছেই।

চার দোষীর দাবি ছিল, “তাদের ফাঁসির দিন পিছিয়ে দেওয়া হোক। কারণ এখনও আইনি বিকল্প পেতে পারে তারা।” কিন্তু তাদের আইনজীবীর দাবি উড়িয়ে দেন সরকারি আইনজীবী ইরফান আহমেদ। তাঁর কথায়, “বিপক্ষের আইনজীবী ১০০টা আবেদন করতে পারেন। কিন্তু ওই চারজনের সমস্ত আইনি বিকল্পের পথ বন্ধ।” রাষ্ট্রপতিও চারজনের আরজি খারিজ করে দিয়েছেন। সুপ্রিম কোর্টেও মুকেশ সিংয়ের আরজি পত্রপাঠ খারিজ করে দেওয়া হয়। তার দাবি ছিল, অপরাধ সংগঠিত হওয়ার সময় সে ঘটনাস্থলে ছিলই না। কিন্তু তার সেই আরজি সু্প্রিম কোর্টে ধোপে টেকেনি। এদিন পাতিয়ালা হাউস কোর্টে হাজির ছিলেন অপরাধী অক্ষয় সিংয়ের স্ত্রী। তিনি আবার আদালতের বাইরে জ্ঞান হারান। রায়দানের পর তিনি আত্মহ্ত্যারও হুমকি দিয়েছেন।

[আরও পড়ুন : করোনা রুখতে আগামিকাল সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক প্রধানমন্ত্রীর]

এদিনও চার অপরাধীর আইনজীবী এ পি সিং বলেন, “ওরা দেশের হয়ে কাজ করতে চায়। ওদের ফাঁসি দেবেন না। এদিকে আদালতের রায়ে খুশি নির্ভয়ার পরিবার।” প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে ১৬ ডিসেম্বর দিল্লিতে চলন্ত বাসে এক মেডিক্যাল পড়ুয়াকে ধর্ষণ করে ছজন। তারপর দীর্ঘ আইনি চলে। এর আগে তিনবার মৃত্যু পরোয়ানা জারি হলেও শেষপর্যন্ত তা পিছিয়ে যায়। ২০ মার্চ অবশেষে ফাঁসি হবে চার অপরাধীর।

[আরও পড়ুন : সময় দিলেই ঘোড়া কেনাবেচার সুযোগ বাড়বে, মধ্যপ্রদেশ ইস্যুতে মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement