BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রাহুলের আমেঠিতে ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’র ছোঁয়া, স্মৃতির প্রশংসায় পঞ্চমুখ গ্রামবাসীরা

Published by: Tanujit Das |    Posted: August 31, 2018 3:53 pm|    Updated: August 31, 2018 3:53 pm

 Amethi's Pindara Thakur villagewould go fully digital from September one

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কংগ্রেসের গড় বলে পরিচিত আমেঠি৷ এখানকার সাংসদ খোদ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ পিন্ডারা ঠাকুর নামের গ্রামটি এই লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত৷ আগামী পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে সম্পূর্ণরূপে ডিজিটাল হয়ে যাচ্ছে এই গ্রাম৷ মাউসের একটি ক্লিকেই এবার সব রকমের সরকারি সুযোগ সুবিধার হদিশ পাবেন গ্রামের মানুষ৷ যেকোনও ফর্ম পূরণ করতে পারবেন অনলাইনে৷ তবে এই সুবিধার পাইয়ে দেওয়ার জন্য রাহুল গান্ধীর তথা এলাকার সাংসদের কৃতজ্ঞতা স্বীকার করতে রাজি নন গ্রামবাসী৷ বরং কেন্দ্রীয় বস্ত্রমন্ত্রী স্মৃতি ইরানির নামে ধন্য ধন্য রব তুলেছেন তাঁরা৷ তাঁর সাহায্যেই এই কাজ সম্ভব হয়েছে বলে জানাচ্ছেন গ্রামবাসীরা৷

[নাগাল্যান্ডে ভয়াবহ বন্যায় মৃত ১২, বিপর্যয় মোকাবিলা দল পাঠাল কেন্দ্র]

জানা গিয়েছে, কেন্দ্রের ডিজিটাল ইন্ডিয়ার প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে আমেঠির মুসাফিরখানা জেলার অন্তর্গত এই গ্রামকে৷ ধাপে ধাপে এই এলাকাকে ডিজিটালাইজড করে তোলার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে৷ জেলাশাসক দেবী বয়াল ভার্মা জানান, উন্নতমানের ওয়াই-ফাই ক্যাপসুলের মাধ্যমে ওই গ্রামে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়া হবে৷ যার ফলস্বরূপ প্রথমধাপে, পনেরো দিনের জন্য দুই জিবি ডেটা বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন গ্রামবাসীরা৷ পরবর্তীকালে যৎসামান্য মূল্যে গ্রামে ইন্টারনেট পরিকল্পনা রয়েছে প্রশাসনের৷

জানা গিয়েছে, পয়লা সেপ্টেম্বর স্মৃতি ইরানির উপস্থিতিতে ডিজিটাল জগতের দিকে পা বাড়াবে আমেঠির পিন্ডারা ঠাকুর গ্রাম৷ এছাড়া আমেঠি পোস্ট অফিসে ‘ডিজিটাল ব্যাংকিং’ পরিষেবার উদ্বোধন করবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী৷ ফলে এবার খাতা কলমের পরিবর্তে ডিজিটাল মাধ্যমেই সংরক্ষণ করা যাবে ব্যাংকের সমস্ত তথ্য৷ স্মৃতি ইরানির আগমনের খবরে ইতিমধ্যে সাজ সাজ রব সমগ্র গ্রামজুড়ে৷

[রেকর্ড পতন টাকার মূল্যে, পাল্লা দিয়ে বাড়ল পেট্রল-ডিজেলের দাম]

উল্লেখ্য, ২০১৪-র লোকসভা নির্বাচনে রাহুল গান্ধীর বিপক্ষে দাঁড়িয়ে এই আমেঠি কেন্দ্র থেকেই লড়াই করেন স্মৃতি ইরানি৷ প্রবল মোদি হাওয়ার মধ্যেও প্রায় এক লাখ ভোটে পরাজিত হন তিনি৷ কিন্তু এরপরেও হাল ছাড়েননি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী৷ দীর্ঘদিন ধরে মাটি কামড়ে পড়ে রয়েছেন সেখানে৷ সূত্রের খবর, এলাকার সাংসদ হওয়া সত্ত্বেও ওই লোকসভা কেন্দ্রে তেমন একটা সময় দেন না রাহুল গান্ধী৷ এই অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরেই বাসা বেঁধে রয়েছে আমেঠির মানুষের মধ্যে৷ মানুষের এই জমে থাকা ক্ষোভকেই উনিশের লোকসভা নির্বাচনে কাজে লাগাতে চাইছে গেরুয়া শিবির৷ রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, সেই কারণেই ধীরে ধীরে আমেঠিতে তাঁর রাজনৈতিক জমি পোক্ত করছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী৷ তাঁদের অনুমান, ২০১৯-এও এই কেন্দ্রে প্রার্থী করা হতে পারে স্মৃতি ইরানিকে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে