৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বান্দ্রায় পরিযায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভে উসকানি, গ্রেপ্তার মূল অভিযুক্ত

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 15, 2020 11:40 am|    Updated: April 15, 2020 12:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গুজব রটে মঙ্গলবার রাতে মুম্বইয়ের বান্দ্রা (Bandra) স্টেশনে জমায়েত করেছেন প্রায় হাজার খানেক পরিযায়ী শ্রমিক। এই মিথ্যে তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বিনয় দুবে নামে এক ব্যক্তিকে। অভিযুক্ত নিজেকে স্বঘোষিত শ্রমিক নেতা বলেই পরিচয় দিয়েছেন। লকডাউনের মধ্যেই তিনি পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরার জন্য আহ্বান জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘চলো ঘর কি ওর’ (Chalo Ghar Ki Ore)ক্যাম্পেনের পোস্ট করেন। ফলে লকডাউনের জেরে ভিন রাজ্যে আটকে থাকা শ্রমিকেরা তার ডাকে সাড়া দিয়ে রাস্তায় বেরোতে শুরু করেন।

লকডাউনের জেরে বন্ধ করে দেওয়া হয় গণপরিবহন। সংক্রমণ রুখতে তাই পরিযায়ী শ্রমিকদের অনুরোধ করা যাঁরা যে রাজ্যে রয়েছেন সেখানেই থেকে যেতে। কিন্তু টানা ২১ দিনের লকডাউন শেষের দিনেই বাধে গন্ডগোল। মুম্বইয়ের বান্দ্রায় লকডাউনের নিয়ম ভেঙে রাস্তায় বেরিয়ে বাড়ি ফেরার দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন প্রায় কয়েক`শ শ্রমিক। পরিস্থিতি সামাল দিতে লাঠিচার্জ করতে বাধ্য হন পুলিশ। সামাজিক দূরত্ব বজায় যেখানে প্রধান নিয়ম সেখানে কয়েক`শ শ্রমিক একসঙ্গে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ায় প্রথমে হতচকিত হয়ে পড়েন পুলিশ কর্মীরা। তবে ঘটনার পরই পুলিশ জানতে পারেন অভিযুক্ত ব্যক্তি বিনয় দুবে সোশ্যাল মিডিয়ায় সকলের উদ্দেশ্যে বাড়ি ফেরার আহ্বান জানিয়ে উস্কানিমূলক মন্তব্য করেছিলেন। তার জেরেই এই কাণ্ড। এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযুক্তের পোস্টটি খুঁজতে শুরু করে বান্দ্রা পুলিশ। বান্দ্রায় বিক্ষোভ দেখানো পরিয়ায়ী শ্রমিকদের অধিকাংশই বিহার, বাংলা, মধ্যপ্রদেশ ও উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা বলে জানা যায়।

[আরও পড়ুন:বান্দ্রার পর সুরাট, ঘরে ফেরার দাবি তুলে লকডাউন ভেঙে বিক্ষোভ পরিযায়ী শ্রমিকদের]

বান্দ্রায় পরিযায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে যেখানে বিনয় দুবেকে নানা রকম উস্কানিমূলক মন্তব্য করতে শোনা যায়। ভিডিওতে বিনয় দুবে বলেন, “১৪ বা ১৫ এপ্রিল লকডাউন উঠে গেলে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে ট্রেনের ব্যবস্থা করা হবে। তবে নিজেদের রাজ্যে ফিরতে পারলেও তাদের কোয়ারেন্টাইনেই রাখা হবে। আর অন্য রাজ্যে থেকে গেলে করোনা না হলেও খেতে না পেয়ে তারা মরে যাবেন। তাই পরিযায়ী শ্রমিকদের এই ক্যাম্পেনেপা মেলাতে হবে।আমি, বিনয় দুবে, পায়ে হেঁটেই এই অভিবাসীদের সঙ্গে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হবো।” মুম্বই পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতেই তাঁকে নবি মুম্বই থেকে গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবারের বান্দ্রার ওই ঘটনায় পর প্রায় এক হাজার লোকের বিরুদ্ধে হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে একটি এফআইআর দায়ের করেছে।

[আরও পড়ুন:২০ এপ্রিল থেকে লকডাউনে কোন কোন ক্ষেত্রে ছাড়? নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্র]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement