২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বাড়িতে ঢুকে সেনা জওয়ানকে খুনের ঘটনা জম্মু-কাশ্মীরে৷ শনিবার সন্ধের মুখে সোপোরের ওয়ারপোরায় মহম্মদ রফি ইয়াতু নামে এক জওয়ানের বাড়িতে ঢুকে এলোপাথাড়ি গুলি চালায় একদল আততায়ী৷ সোপোরের এসএসপি জাভেদ ইকবাল জানিয়েছেন, তাদের সকলের মুখ ছিল কালো কাপড়ে বাঁধা৷ হামলার সঙ্গে সঙ্গেই গুলিতে গুরুতর জখম মহম্মদকে নিয়ে স্থানীয় হাসপাতালে ছুটে যান আত্মীয়রা৷ কিন্তু চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন৷

ঘটনার খবর পেয়ে ওয়ারপোরা এলাকায় ছুটে যায় পুলিশ, নিরাপত্তা বাহিনী৷ এলাকা ঘিরে শুরু হয় তল্লাশি অভিযান৷ জঙ্গিরা লুকিয়ে রয়েছে কি না, বুঝতে রাতভর রাইফেল উঁচিয়ে নজর রেখেছে নিরাপত্তা বাহিনী৷ তবে জঙ্গিরা যেমন অতর্কিতে এসে গুলি চালিয়েছিল, তেমনই ক্ষিপ্রগতিতে চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে গিয়েছে৷ ভারতীয় সেনাবাহিনীর জওয়ান মহম্মদ রফি ইয়াতু কাজ থেকে ছুটি পেয়ে নিজের ওয়ারপোরার বাড়িতে ছিলেন৷ নিজের ঘরও যে জওয়ানদের জন্য নিরাপদ নয়, কাশ্মীর উপত্যকায় তা ফের প্রমাণিত৷

                                   [আরও পড়ুন: ভোট বৈতরণী পেরোতে ভগবানই ভরসা তেলেঙ্গানার চন্দ্রশেখর রাওয়ের]

গত বছরের জুলাইতে এই সোপোরেই মাত্র ২৩ বছরের সেনা অফিসার উমর ফয়াজকে রাস্তা থেকে টেনে নিয়ে গিয়েছিল জঙ্গিরা৷ আখনুর সেক্টরে কর্মরত রাজপুতানা রাইফেলসের অফিসার উমর বাড়ি গিয়েছিলেন ভাইয়ের বিয়েতে যোগ দিতে৷ সেখানে যাওয়ার পথেই তাঁকে গুলি করে খুন করা হয়৷ তারও আগে জুনে রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের জওয়ান ঔরঙ্গজেব ইদের ছুটি কাটাতে গাড়ি করে পুঞ্চের বাড়িতে ফিরছিলেন৷ মাঝরাস্তা থেকে অপহরণ করে নিয়ে গিয়েছিল জঙ্গিরা৷ তারপর নৃশংসভাবে তাকে খুন করা হয়৷ এলোপাথাড়ি গুলি তাঁর মাথা এবং পেট ঝাঁজরা করে দিয়েছিল৷ সেই দেহ পাওয়া গিয়েছিল সেনা আবাসনের সামনে৷ এভাবেই একের পর এক ছুটি নিয়ে বাড়ি ফেরা জওয়ানকে টার্গেট করে হত্যা করেছে জঙ্গিরা৷ আর শনিবারের ঘটনা একেবারে বাড়ি মধ্যে৷ চরম নিরাপত্তাহীনতায় উপত্যকার জওয়ান পরিবারগুলি৷

                         [ আরও পড়ুন : নীতীশের ছোঁয়াতেই যেন ম্যাজিক, ভোটের আবহে স্পষ্ট বার্তা আমূল পালটে যাওয়া বিহারে]

পুলওয়ামা হামলার ক্ষত এখনও মোছেনি৷ সিআরপিএফ কনভয়ে জঙ্গি হামলায় ৪৯ জন জওয়ান শহিদ হওয়ার পর সেনা নিরাপত্তায় একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে কেন্দ্র৷ আর তাতেই হামলার অভিমুখ পালটে ফেলেছে জঙ্গিবাহিনী৷ দলবদ্ধ সেনাকর্মীদের বদলে ব্যক্তিগতভাবে জওয়ানদের টার্গেট করা হচ্ছে৷ মহম্মদ রফি ইয়াতুর ঘটনা তারই আরেকটা প্রমাণ৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং