BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মেজর গগৈয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 24, 2017 1:55 pm|    Updated: May 24, 2017 1:55 pm

Army Chief General Bipin Rawat writes letter of commendation for Major Gogoi

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মেজর গগৈয়ের বিরুদ্ধে কোনও শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করবে না ভারতীয় সেনা, স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন দেশের সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত। সহকর্মী, নির্বাচন কমিশনের অফিসার ও নির্বাচনে ব্যবহৃত যন্ত্রগুলি রক্ষা করতেই কাশ্মীরি যুবককে সেনা জিপের সামনে বেঁধে (হিউম্যান কভার) অশান্ত এলাকা ছাড়েন মজর গগৈ। এই কাজের জন্য ‘কোর্ট অফ এনকোয়্যারি’ তাঁকে দোষী চিহ্নিত করলেও মেজর গগৈয়ের বিরুদ্ধে কোনও কড়া পদক্ষেপ করবে না সশস্ত্র সেনা, এমনটাই ইঙ্গিত জেনারেল বিপিন রাওয়াতের।

[জিপে বাঁধা কাশ্মীরি যুবক, মেজরের পুরস্কারে উঠল পাল্টা প্রশ্ন]

তাঁর ইঙ্গিত, সেনার নিয়ম ভাঙার মতো কোনও কাজ করেননি মেজর গগৈ। বরং গগৈকে তাঁর বীরত্বের জন্য পুরস্কৃত করতে পারে কেন্দ্র। জেনারেল রাওয়াত বলেন, “মেজর গগৈয়ের কীর্তি অনেককেই অনুপ্রেরণা জোগাবে। কী করে কঠিন পরিস্থিতিতে মাথা ঠান্ডা রেখে কার্যসিদ্ধি করতে হয়, মেজর গগৈ তাঁর নিদর্শন স্থাপন করেছেন।” এদিনও দেশের সেনাপ্রধান স্পষ্ট করে দিয়েছেন, কাশ্মীরে যারা পাথর ছুড়ছে, তারা দেশদ্রোহী। তাদের দেশদ্রোহী হিসাবেই দেখবে সশস্ত্র সেনা। মেজর গগৈয়ের প্রশংসা করেই থেমে থাকেননি জেনারেল রাওয়াত। তাঁকে একটি শংসাপত্রও পাঠিয়েছেন। সেখানে অন্যান্য কয়েকজন সেনাকর্তাদের পাশাপাশি মেজর গগৈয়ের ভূয়সী প্রশংসা করেন জেনারেল রাওয়াত। খবর সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের।

 

কাশ্মীরে পাথর নিক্ষেপকারীদের আটকাতেই এই অভিনব পন্থা নিয়েছিলেন বলে সাংবাদিক বৈঠক ডেকে জানান মেজর গগৈ। জিপের সামনে তিনি বেঁধে দিয়েছিলেন এক কাশ্মীরি যুবককে। তারপর সতর্ক করেন পুরো মহল্লাকে। এই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়তে তাঁর বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়। যদিও সেনাবাহিনী ও কেন্দ্র আগাগোড়াই তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছে।

[‘পাথর নিক্ষেপকারীকে জিপে বেঁধে অনেক প্রাণ বাঁচিয়েছি’]


সমালোচকদের জবাব দিয়ে মেজর গগৈ জানিয়েছেন, ঘটনার দিন বদগাঁও জেলার একটি নির্বাচন কেন্দ্রে স্বল্পসংখ্যক আইটিবিপি জওয়ান ও নির্বাচন আধিকারিকদের ঘিরে ধরে পাথর ছুঁড়ছিল বিক্ষোভকারীরা৷ সরকারি আধিকারিকদের বাঁচাতে মেজর গগৈ ও তাঁর টিম ঘটনাস্থলে যান। সেখানে ফারুক দার নামের ওই অভিযুক্ত যুবক জনতার সামনে উসকানিমূলক ভাষণ দিচ্ছিল৷ তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে দারকে জিপের সামনে বেঁধে ফেলা হয়৷ মেজর গগৈ বলছেন, “আমরা ছয় জন ছিলাম৷ প্রায় ১২০০ পাথর নিক্ষেপকারী আমাদের ঘিরে ধরেছিল৷ যদি গুলি চালানোর আদেশ দিতাম অনেক বিক্ষোভকারী প্রাণ নিয়ে ফিরতে পারত না৷ তা না করে জিপে ওই বিক্ষোভকারীকে বেঁধে অনেকের প্রাণ বাঁচিয়েছি৷”

দেখুন ভিডিও:

[‘সুখোই খোঁজার অজুহাতে চিন সীমান্তে অশান্তি ছড়াচ্ছে ভারত’]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে