১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

নিজস্ব পৃথক ‘এয়ার ফোর্স’ চায় সেনাবাহিনী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 20, 2017 3:04 pm|    Updated: May 20, 2017 3:04 pm

Army wants its own 'mini Air Force'

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অতীতে বায়ুসেনার সঙ্গে তিক্ত সম্পর্কের জন্য সেনাবাহিনীর অন্দরে ফের নিজস্ব আলাদা ‘মিনি এয়ারফোর্স’ গঠনের দাবি মাথাচাড়া দিয়ে উঠল৷ তবে সেনার একটি সূত্রে খবর, নিজস্ব ছোট বায়ুসেনা গঠনের খরচ হবে অনেক৷

আপাতত সেনাবাহিনী হেভি-ডিউটি অ্যাটাক হেলিকপ্টারের তিনটি স্কোয়াড্রন চায়৷ প্রতিটি স্কোয়াড্রনে থাকবে ১৩টি করে চপার৷ বাহিনীর তিনটি স্ট্রাইক কর্পস এই তিনটি স্কোয়াড্রন ব্যবহার করবে৷ মথুরা ১ কর্পস, অম্বালা ২ কর্পস ও ভোপাল ২১ কর্পস এই অ্যাটাক হেলিকপ্টারগুলি ব্যবহার করবে৷ শত্রু ঘাঁটিতে হামলার জন্য প্রাথমিকভাবে এই দাবি ক্রমশ জোরাল হচ্ছে সেনাবাহিনীর অন্দরে৷

[শহিদ জওয়ানদের পরিবারকে ১ কোটির সাহায্য দেবে কেন্দ্র]

১৩ লক্ষ সেনা নিয়ে গঠিত ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য কেন্দ্রের কাছে ১১টি অ্যাপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টার চায় সেনাবাহিনী৷ সম্প্রতি কেন্দ্রের কাছ থেকে ১৩, ৯৫২ কোটি টাকা খরচ করে আমেরিকার কাছ থেকে এরকম ২২টি চপার পেয়েছে বায়ুসেনা৷ কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী অরুণ জেটলির নেতৃত্বে আগামী শনিবার এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসতে চলেছে ডিফেন্স অ্যাকুজিশন কাউন্সিল(DAC)৷ ওই বৈঠকেই এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হতে পারে বলে সূত্রের খবর৷

সেনা চায়, নয়া অ্যাপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টারের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ তাদের হাতে থাকুক৷ হেলিকপ্টার গানশিপ থেকে শত্রু ঘাঁটি টার্গেট করে গুঁড়িয়ে দিতে যাতে বায়ুসেনার অনুমতি না লাগে, সেটাই এখন সেনার লক্ষ্য৷ কারণ, অনুমতি পেতে অনেকটা সময় ব্যয় হয়ে যায়৷ যুদ্ধের সময় প্রতিটি সেকেন্ডের গুরুত্ব অনেক৷ তবে বায়ুসেনার গুরুত্বকে এতটুকুও খাটো করে দেখছে না সেনাবাহিনী৷ কারণ, শত্রুদের ট্যাঙ্ক, ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিতে পদাতিক সেনা সমর্থ হলেও বড়সড় হামলার জন্য এখনও বায়ুসেনার অবদানই সর্বশ্রেষ্ঠ৷

[৩ জুন থেকে ইভিএমে কারচুপি করে দেখানোর ডাক কমিশনের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে