BREAKING NEWS

২২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শুক্রবার ৫ জুন ২০২০ 

Advertisement

এবার সেনাতেও ছাঁটাইয়ের ভাবনা! চাকরি হারাতে পারেন ২৭ হাজার জওয়ান

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 13, 2019 8:20 pm|    Updated: August 13, 2019 8:20 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জেট এয়ারওয়েজ, বিএসএনএল, এয়ার ইন্ডিয়ার মতো সংস্থার পর এবার সেনাবাহিনীতেও ছাঁটাইয়ের আশঙ্কা। সেনা সূত্রের খবর, শীঘ্রই চাকরি হারাতে পারেন অন্তত ২৭ হাজার সেনা জওয়ান। খরচ কমাতে সদস্য সংখ্যা কমানোর কথা ভাবছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। সেনার নন-কোর ইউনিট থেকে অন্তত ২৭,০০০ জওয়ানের চাকরি যেতে পারে বলে সূত্রের খবর। সেনাবাহিনীর বিপুল খরচ কমাতেই ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে খবর।

[আরও পড়ুন: মূল স্রোতে ফেরার তাগিদ! ত্রিপুরায় আত্মসমপর্ণ ৮৮ জন জঙ্গির]

সেনা সূত্রের খবর, বাহিনীর পরিমাণ কমিয়ে অস্ত্রশস্ত্রের পিছনে খরচ বাড়াতে পারে সরকার। যে সমস্ত জওয়ান সরাসরি বাহিনীর কোর-ইউনিটের সঙ্গে যুক্ত নন, তাদের মধ্যে অনেককেই ছাঁটাই করা হতে পারে। ভারতীয় সেনাবাহিনীতে বর্তমানে সদস্যসংখ্যা ১২.৫ লক্ষ। মিলিটারি ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিস, ন্যাশনাল ক্যাডেট কর্পস, বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন, টেরিটোরিয়াল আর্মি অ্যান্ড সৈনিক স্কুলের মতো সংগঠনে ১,৭৫,০০০ অফিসার ও জওয়ান কর্মরত আছেন। এদের মধ্যে থেকেই ২৭ হাজার জনকে ছাঁটাই করা হতে পারে বলে সূত্রের খবর।যদিও, সরকারিভাবে এখনও এ বিষয়ে কিছু জানায়নি সেনাবাহিনী।তবে, জওয়ানদের অনেকেই চাকরি খোয়ানোর আশঙ্কায় ভুগছেন।

 ভারতীয় সেনাবাহিনীতে বর্তমানে সদস্যসংখ্যা ১২.৫ লক্ষ। মিলিটারি ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিস, ন্যাশনাল ক্যাডেট কর্পস, বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন, টেরিটোরিয়াল আর্মি অ্যান্ড সৈনিক স্কুলের মতো সংগঠনে ১,৭৫,০০০ অফিসার ও জওয়ান কর্মরত আছেন। 

[আরও পড়ুন: এবার সিকিম! পবন চামলিংয়ের দল থেকে বিজেপিতে যোগ দিলেন ১০ বিধায়ক]

জওয়ানের সংখ্যা কমানো হলে বছরে প্রায় ১৬০০ কোটি টাকা বাঁচবে সরকারের। যে টাকা সেনার শক্তি বাড়ানোর কাজে লাগানো হতে পারে।যদি, প্রস্তাবিত এই ছাঁটাই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়, তাহলে অনিশ্চিত হয়ে যেতে পারে ওই ২৬ হাজার পরিবারের ভবিষ্যত। যা মন্দার বাজারে উদ্বেগের বিষয়। নিন্দুকেরা বলেন, মোদি দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পিছনে সেনাবাহিনীর কৃতিত্বই সবচেয়ে বেশি। ভারতীয় বায়ুসেনা যদি এয়ারস্ট্রাইক না করত তাহলে হয়তো ক্ষমতায় ফেরাই হত না মোদির। বিজেপির ক্ষমতায় আসার পিছনে যে জাতীয়তাবাদের কৃতিত্ব রয়েছে সেকথা অস্বীকার করেন না বিজেপি নেতারাও। অথচ, ভোট মেটার পর সেই সেনাবাহিনীতেই ছাঁটাই, মেনে নিতে পারছেন না অনেকেই।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement