BREAKING NEWS

১৯ ফাল্গুন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৪ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

CAA বিক্ষোভের জের, অসমে পর্যটন শিল্পে ১০০০ কোটি টাকার লোকসান

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: December 31, 2019 7:20 pm|    Updated: December 31, 2019 7:20 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভের জের। রেকর্ড অংকের ক্ষতির মুখে অসম। সূত্রের খবর, উত্তর-পূর্বের এই রাজ্যে ১০০০ কোটি টাকার লোকসান হয়েছে। যার রেশ নতুন বছরেও থাকবে। সবচেয়ে মার খেয়েছে রাজ্যের পর্যটন। ডিসেম্বরে তো ক্ষতি হয়েইছে এবং আগামী জানুয়ারি মাসে আরও ক্ষতির আশঙ্কায় রয়েছে রাজ্যের পর্যটন দপ্তর। পর্যটন উন্নয়ন দপ্তরের চেয়ারম্যান জয়ন্ত মাল্লা বড়ুয়া সংবাদমাধ্যমের কাছে ক্ষতির কথা স্বীকার করেছেন।

লোকসভায় এবং তারপর রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ হওয়ার পর থেকেই বিক্ষোভের আগুন জ্বলে অসম-সহ উত্তর-পূর্ব ভারতের একাধিক রাজ্যে প্রতিবাদে রাস্তায় নামেন সাধারণ মানুষ। তারপর রাষ্ট্রপতি বিলে সিলমহোর দিতে তা আইনে পরিণত হয়। বিক্ষোভ তারপর গোটা দেশে ছড়িয়ে পড়ে। অসমে প্রায় ছ’জনের মৃত্যু হয় হিংসায়। পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয় দশম শ্রেণির এক ছাত্রের। বিষয়টি আন্তর্জাতিক মহলেও উদ্বেগের সৃষ্টি করে। ফ্রান্স, ব্রিটেন, আমেরিকা-সহ একাধিক দেশ পর্যটকদের অসম ও উত্তর-পূর্ব ভারতে যাওয়ার ক্ষেত্রে অ্যাডভাইজরি জারি করে। তাতে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে পর্যটন শিল্পে।

[আরও পড়ুন: CAA বিরোধী আন্দোলনের প্রভাব! বড়দিনের মরশুমেও পর্যটকশূন্য গোয়ার অধিকাংশ হোটেল]

দেশের মধ্যে অন্যতম পছন্দের পর্যটনস্থল হল অসম। কাজিরাঙ্গা জাতীয় উদ্যান, কামাখ্যা মন্দির, মাজুলি দ্বীপ, তেজপুর, হাজো, ডিব্রুগড়, শিবসাগরের মতো উল্লেখযোগ্য বেড়ানোর জায়গা রয়েছে অসমে। বছরের সবসময়ই পর্যটকদের ভিড় থাকে উত্তর-পূর্বের রাজ্যে। অনেকেই আবার গুয়াহাটিতে পৌঁছে সেখান থেকে ছবির মতো সুন্দর রাজ্য মেঘালয়ে বেড়াতে যান। বিদেশি পর্যটকদের আনাগোনাও প্রচুর থাকে। এবার নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদের জেরে বিপুল লোকসান কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে রাজ্যের পর্যটন ব্যবসায়ীদের। নতুন বছরে পর্যটনের ভরা মরশুমেও বুকিং নেই বললেই চলে। ৩০ শতাংশও পর্যটকদের দেখা নেই। সবমিলিয়ে উদ্বেগে রাজ্যে পর্যটন দপ্তর।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement