BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

CAA বিরোধী আন্দোলনের প্রভাব! বড়দিনের মরশুমেও পর্যটকশূন্য গোয়ার অধিকাংশ হোটেল

Published by: Bishakha Pal |    Posted: December 30, 2019 2:19 pm|    Updated: December 30, 2019 2:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: NRC এবং CAA-র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ-বিক্ষোভে এ যেন একেবারে অন‌্য গোয়া। যেখানে পর্যটকরা জমিয়ে রাখেন, সেখানে এই শীতের জমজমাট সময়ে দেখা নেই তাঁদেরই।

দেশজুড়েই এবার শীত বেশ ভালই ব‌্যাটিং করছে। জবুথবু অবস্থাতেও দেশবাসীরা চুটিয়ে শীত উপভোগ করছেন। তার উপর এখন চলছে বড়দিন ও বছর শেষের উদযাপনের মরশুম। একেবারে সেলিব্রেশনের ‘মুডে’ রয়েছেন দেশবাসী। কিন্তু এ অবস্থাতেও একেবারে মন ভাল নেই গোয়ার পর্যটন ব‌্যবসায়ীদের। কারণ একটাই। বছর শেষের উৎসবের মরশুমে তেমন একটা দেখা নেই পর্যটকদেরই। গোয়ার হোটেলগুলির অনেকগুলির তো অবস্থা বেশ করুণ। যেখানে ডিসেম্বরের শেষে এই সময় গোয়ার হোটেলগুলিতে পর্যটকরা ঘর পেতে গেলে অনেক কাঠখড় পোহাতে হয়, সেখানে হোটেলগুলির অনেক ঘরই ফাঁকা পড়ে রয়েছে।

[ আরও পড়ুন: ২০২০-তে প্রচুর উইকএন্ড প্ল্যানের সুযোগ, দেখে নিন ছুটির তালিকা ]

এর মধ্যেই হোটেল ব‌্যবসায়ীরা এই বছরকে ‘খুব খারাপ বছর’ বলে তকমা দিয়ে ফেলেছেন। গোয়ার ট্র‌্যাভেল অ‌্যান্ড টু‌রিজম অ‌্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, অন‌্য বছরের থেকে এবার প্রায় ৫০ শতাংশ কম পর্যটক ভিড় জমিয়েছে গোয়ার সমুদ্র সৈকতে। এমনকী, গত বছর হোটেল ব‌্যবসায়ীরা যা আয় করেছিল, তার থেকে এবার অনেকটাই কম ব‌্যবসা হয়েছে তাঁদের। পরিসংখ‌্যান দিয়ে তিনি জানিয়েছেন যে, গত বছর যেখানে হোটেলগুলিতে ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ ঘর ভরতি ছিল, সেখানে এবার একেবারেই খারাপ অবস্থা। ৫০ শতাংশ ঘরই প্রায় ফাঁকা বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। সবচেয়ে বড় কথা, বিশেষ করে দেখা নেই বিদেশি পর্যটকের। এমনকী, সমুদ্র সৈকতে সানগ্লাস বিক্রি অনেকটাই কমে গিয়েছেন। এক বিক্রেতা জানিয়েছেন, ১০০ টাকার জায়গায় ৫০-৬০ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে।

তা কী কারণে এবার এই পর্যটনে ভাটা? প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, একে তো NRC নিয়ে দেশজুড়ে প্রতিবাদ, বিক্ষোভের জেরে গোয়া-সহ বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্রেই ভিড় কম, তার উপর থমাস কুকের জন‌্য বিদেশিদের দেখা নেই সমুদ্র সৈকতের রাজ্যে। পর্যটকদের ‘দেখা নেই’ অবস্থার জেরে বেজায় উদ্বিগ্ন হোটেল ব‌্যবসায়ীরা। এর মধ্যে অনেকেই হোটেলের দাম কমিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আর কিছুদিনের মধ্যেই গোয়ায় উৎসব রয়েছে, তখন কিছু ভিড় আশা করছেন হোটেল ব‌্যবসায়ীরা।

[ আরো পড়ুন: রেন ফরেস্টে হোক বিয়ের পার্টি, কলকাতাকে ডাকছে চিন ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement