BREAKING NEWS

২৫ চৈত্র  ১৪২৬  বুধবার ৮ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

২০২০-তে প্রচুর উইকএন্ড প্ল্যানের সুযোগ, দেখে নিন ছুটির তালিকা

Published by: Sulaya Singha |    Posted: December 29, 2019 3:47 pm|    Updated: December 29, 2019 4:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুরনো বছরের সমস্ত হতাশা, গ্লানি, ব্যর্থতাকে বিদায় জানিয়ে নববর্ষকে হাসি মুখে স্বাগত জানাতে তৈরি হওয়ার পালা। নতুন বছরে নতুন ভাবনা আর পরিকল্পনায় ভর দিয়ে নতুনভাবে এগিয়ে যেতেই চান সকলে। আপনিও নিশ্চয়ই তার ব্যতিক্রম নন। দৈনন্দিন কাজ, কর্মজীবনের ব্যস্ততার ফাঁকেও আগামী বছরটা কীভাবে নিজের জন্য সময় বের করে নেবেন, সে পরিকল্পনাও নিশ্চিতভাবে করছেন। আপনার কাজ আরও একটু সহজ করে দিতেই এই প্রতিবেদন। দেখে নিন কর্মক্ষেত্র থেকে টানা ছুটি নিয়ে কবে ঘুমের কিংবা ব্যাগ গুছিয়ে ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করে ফেলতে পারেন।

২১ থেকে ২৩ ফ্রেব্রুয়ারি: ২১ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার মহা শিবরাত্রি। পরের দু’দিন শনি ও রবিবার। সুতরাং তিনদিনের টানা ছুটি। উইকএন্ড প্ল্যানের জন্য আদর্শ সময়।
১০ থেকে ১৩ এপ্রিল: ১০ তারিখ গুড ফ্রাইডে উপলক্ষে ব্যাংক থেকে সরকারি ও বেসরকারি নানা অফিসই ছুটি থাকে। শুক্রবারের পর শনি ও রবিবার এমনিই ছুটি। সোমবার আবার বৈশাখী উৎসব। বাঙালিদের ক্ষেত্রে নববর্ষ। সুতরাং চারদিনের লম্বা ছুটিতে কিছু না কিছু প্ল্যান করা যেতেই পারে।

halkhata

[আরও পড়ুন: রেন ফরেস্টে হোক বিয়ের পার্টি, কলকাতাকে ডাকছে চিন]

১ থেকে ৩ মে: জানলে খুশি হবেন, এবার মে দিবস পড়েছে শুক্রবার। তারপর তো শনি ও রবিবার ছুটি। যাঁদের একান্তই শনিবার ছুটি নেই, তাঁরা একদিনের ছুটি যোগ করে নিলেই ঘুরতে যাওয়ার জন্য তিনটে দিন ম্যানেজ করতে ফেলতেই পারেন।
২৩ থেকে ২৫ মে: ২৩ ও ২৪ শনি ও রবিবার। তার পরের দিন সোমবার ইদ-উল-ফিতর। মানে এক্ষেত্রেও তিনদিনের ছুটি।
১ থেকে ৩ আগস্ট: শনিবার মানে ১ আগস্ট ইদ-উল-আদা। রবিবার ছুটির দিনের পরই আবার সোমবার রাখী পূর্ণিমা। ভাই-বোন মিলে আশেপাশে কোথাও তিনদিনের জন্য ঘোরার প্ল্যানটা এখন থেকেই বানিয়ে ফেলুন।
২৯ থেকে ৩১ আগস্ট: এই মাসেই আরও একবার টানা তিনদিন ছুটির শিকে ছিঁড়তে পারে অনেকেরই। শনিবারের ছুটির পর রবিবার মহরম। আর সোমবার ওমান।
২ থেকে ৪ অক্টোবর: ২ তারিখ তো গান্ধী জয়ন্তী উপলক্ষে জাতীয় ছুটি। সেদিনটিও শুক্রবার। তারপর শনি ও রবিবারের ছুটি। পুজোর আগে হালকা ঠান্ডায় বন্ধুদের নিয়ে জমাটি কোনও প্ল্যান ভাবতেই পারেন।

৩০ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর: শুক্রবার মিলাদ-উন-নবি। পরের দুটি দিন শনি ও রবিবার। পুজোর ছুটির পরপরই এমন ছুটি নিঃসন্দেহে বিশ্রাম নেওয়ার আদর্শ সময়।
২৮ থেকে ৩০ নভেম্বর: শনি ও রবিবারের ছুটি কাটানোর পরের দিন সোমবার কর্মক্ষেত্রে না যেতে হলে, এর চেয়ে সুখের আর কী হতে পারে। সেটাই হবে ৩০ নভেম্বর। কারণ সেদিন গুরু নানক জয়ন্তী।
২৫ থেকে ২৭ ডিসেম্বর: জানতে খুশি হবেন যে আগামী বছর বড়দিনও পড়েছে শুক্রবার। অর্থাৎ বড়দিনের পার্টির পর বিশ্রামের জন্য দুটি দিন ছুটি পেয়ে যাবেন।

christmas

[আরও পড়ুন: CAA’র আঁচ পর্যটন শিল্পে, শীতেও বেড়ানোর হুজুগ কম ভ্রমণপিপাসুদের]

এই তালিকা দেখেও যদি মুখের হাসি চওড়া না হয়ে থাকে, তবে ২০২১ সালের শুরুটা দেখে নিশ্চয়ই হবে।
১ থেকে ৩ জানুয়ারি: শুক্রবার পয়লা জানুয়ারি। পরের দুদিন শনি ও রবিবার। মানে বছরের শুরুতেই নিরুদ্দেশে পাড়ি দিতে কোনও সমস্যা নেই।
তাহলে আর ভাবছেন কী? চটপট পরিবার-বন্ধু বা প্রিয় মানুষটির সঙ্গে ভ্রমণের প্ল্যান তৈরি করতে শুরু করুন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement