BREAKING NEWS

১৪ মাঘ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে উত্তাপেও শান্তির ভোট অসমে

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 11, 2019 5:29 pm|    Updated: April 22, 2019 2:29 pm

Assam voted in a peaceful way in 5 lok sabha constituency

মণিশংকর চৌধুরি, ডিব্রুগড়: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে অশান্তির আঁচ কিছুদিন আগে পর্যন্ত গনগনে ছিল অসম-সহ সমগ্র উত্তর-পূর্বে। তবে, নির্বাচনে সে উত্তাপের ছিটেফোঁটা চোখে পড়ল না। দু-একটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট দিলেন অসমবাসী। অসমের মোট ১৪টি আসনের মধ্যে বৃহস্পতিবার প্রথম দফায় ভোট হল তেজপুর, কলিয়াবর, ডিব্রুগড়, জোরহাট ও লখিমপুরে। ৪১ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণের কাজ সারলেন ভোটাররা। তবে এই পাঁচ কেন্দ্রের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নজরে ছিল কলিয়াবর।

কেন কলিয়াবর, সে প্রসঙ্গে পরে আসছি। আগে বলে নিই, এদিনের অসমের ভোটগ্রহণের সার্বিক ছবিটা কেমন ছিল। সকাল সাতটা থেকে রাজ্যের প্রায় ৯৫৭০টি বুথে শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট শুরু হয়। মহিলাদের জন্য সুরক্ষিত ২০১টি বুথ। মোতায়েন ছিল ১৮০ কোম্পানি আধা সেনা। এবারের পুরুষ ও মহিলা মিলিয়ে ভোটারের সংখ্যা ৭৬ লক্ষ ৩৪৫৮ জন। এছাড়াও তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ১৫৪ জন। হেভিওয়েট প্রার্থীদের মধ্যে কলিয়াবর থেকে ভোট দেন গৌরব গগৈ। ছেলে গৌরবের সঙ্গে জোরহাটের দেবীচরণ গার্লস হাই স্কুলে ভোট দেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ ও স্ত্রী ডলি গগৈ। এদিকে ডিব্রুগড়ে ভোট দেন অসমের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল।

[আরও পড়ুন: প্রথম দফার ভোটে ‘গণতন্ত্রের হত্যা’, তৃণমূলের বিরুদ্ধে কমিশনে নালিশ বিজেপির]

প্রায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোট চললেও ডিব্রুগড়ের দুলিয়াজান এলাকার একটি চা-বাগানে তেলের পাইপলাইনে আইইডি বিস্ফোরণ হয়। যদিও হতাহতের কোনও খবর নেই। পাশাপাশি লক্ষ্মীমপুর ও কলিয়াবর আসনে একাধিক পোলিং বুথে ইভিএমে গন্ডগোল দেখা দেয়। সকাল থেকেই বুথে বুথে যেভাবে ভোটারদের লাইন চোখে পড়ল তা বেশ আশাপ্রদ। এই সংখ্য়াই বলে দিচ্ছে মোটের উপর শান্তিপূর্ণ ভোট।

এবার আসা যাক কলিয়াবরের কথায়। কলিয়াবর সমষ্টিতেই হচ্ছে আসল ‘প্রেস্টিজ ফাইট’। কংগ্রেসের গড় রক্ষার লড়াই এখানে। যেখানে কংগ্রেসের হয়ে লড়ছেন তরুণ গগৈয়ের ছেলে গৌরব গগৈ। এই আসনে বিজেপি কোনও প্রার্থী দেয়নি। বরং জোটসঙ্গী এজিপিকে আসন ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। প্রার্থী করা হয়েছে মণিমাধব মোহন্তকে। ফলে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে হিন্দু বাঙালি ভোটারদের যে সমর্থন ছিল সেটা বেনজিরভাবে অসম গণপরিষদের পক্ষেই যাচ্ছে। আর এই সমীকরণে কলিয়াবরে কিছুটা হলেও সুবিধা পাবে এজিপির প্রার্থী বলে মত রাজনৈতিক মহলের একাংশের। এদিকে এনডিএকে থামাতে কলিয়াবরে কোনও প্রার্থী দেয়নি বদরুদ্দিন আজমলের দল এআইউডিএফ। কংগ্রেস আর এআইউডিএফ-এর মধ্যে যাতে মুসলিম ভোট কাটাকাটি না হয়, সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত। সেদিক থেকে দেখতে গেলে আবার স্বস্তিতে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈয়ের ছেলে গৌরব গগৈ। তবে বিদায়ী সাংসদ গগৈয়ের বিরুদ্ধে কোনও কাজ না করার অভিযোগও রয়েছে স্থানীয়দের। একাধিক জায়গায় তাঁর বিরুদ্ধে পোস্টারও পড়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘২৬ মে মমতা সরকারের মৃত্যু ঘণ্টা বাজবে’, রাজ্যকে বেনজির আক্রমণ অমিতের]

উল্লেখ্য, ভোটের আবহে এদিনই গুয়াহাটিতে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কামপুর ও শিলচরে তাঁর জনসভা। এর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ অসম প্রদেশ কংগ্রেস। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী রিপুন বোরা দাবি করেছেন, নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তাই কমিশনের কাছে আরজি, মোদির ভাষণের সম্প্রচার যেন কোনও চ্যানেল বা রেডিও না করে। এদিকে অসমের পাশাপাশি উত্তর-পূর্ব ভারতের বাকি তিন রাজ্যেও ভোট মোটামুটি শান্তিপূর্ণ। অরুণাচল প্রদেশে দুটি লোকসভা আসনের পাশাপাশি ৬০টি বিধানসভা আসনেও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে। মেঘালয়ে সাধারণ জনতার সঙ্গে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা। মৌরিগাঁওয়ে ভোট দিলেন বিজেপি বিধায়িকা আঙুরলতা ডেকা। নাগাল্যান্ডের মোককচং ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে ভোট দেন ১০৭ বছরের দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সৈনিক।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে