৪ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ধর্মীয় অনুষ্ঠান চলাকালীন রাজস্থানে তাঁবু ভেঙে মৃত্যু হল কমপক্ষে ১৪ জনের৷ আহতের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়েছে৷ জরুরিকালীন পরিস্থিতিতে আহতদের উদ্ধার করে নিকটবর্তী হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে৷ ভেঙে পড়া তাঁবুতে কেউ আটকে রয়েছেন কি না, উদ্ধারকারী দল নামিয়ে তা দেখা হচ্ছে৷

[আরও পড়ুন: সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় স্বাধীনতা নেই! মার্কিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দাবি খারিজ করল ভারত]

ঘটনা রবিবার বিকেলের৷ রাজস্থানে বারমেরে জসোল গ্রামের একটি স্কুলের রামনাম অনুষ্ঠান চলছিল৷ তাঁবু খাঁটিয়ে অনুষ্ঠানে দেখার জন্য ভিড় করেছিলেন বহু মানুষ৷ আচমকাই আবহাওয়ার অবনতি হয়৷ মরু এলাকায় ঝড়বৃষ্টি শুরু হয়৷ প্রবল ঝড়ে তাঁবুগুলি ভেঙে পড়ে৷ তার নিচে চাপা পড়েন বেশ কয়েকজন৷ অনুষ্ঠান সহসাই বদলে যায় আতঙ্কে৷ বারমেরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নিভ সিং জানিয়েছেন, ‘রাম-কথা পাঠ হচ্ছিল সেখানে৷ প্রবল ঝড়ে তাঁবুটি ভেঙে তার নিচে চাপা পড়ে যান অনেকে৷’ ঘটনার খবর পেয়েই স্থানীয় প্রশাসন সেখানে গিয়ে উদ্ধার কাজে হাত লাগায়৷ একে একে সকলকে উদ্ধার করে নিকটবর্তী হাসপাতালে পাঠানো হয়৷ ১৪ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে৷ আহত অবস্থায় এখনও ৫০ জন চিকিৎসাধীন হাসপাতালে৷

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তড়িঘড়ি খোঁজখবর নিতে শুরু করেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট৷ আহতদের যাতে ভালভাবে চিকিৎসা হয়, তার জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্যকর্মীদের৷ উদ্ধারকাজে আরও গতি আনার কথা বলেছেন৷ কীভাবে দুর্ঘটনা ঘটল, তার জন্য যথাযথ তদন্তের নির্দেশও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এই সংক্রান্ত একটি তদন্তকারী দল তৈরি করতে চলেছে জেলা পুলিশ৷ টুইট করে গেহলটের বক্তব্য, ‘জসোলের ঘটনা খুবই দুঃখজনক৷ নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করি৷ আহতদের সঙ্গে সবরকমভাবে আছি৷ দ্রুত তাঁদের আরোগ্যের জন্য প্রার্থনা করছি৷’  

[আরও পড়ুন: অফিস থেকে ফেরার পথে দুষ্কৃতীদের গুলি, গুরুতর জখম মহিলা সাংবাদিক]

খবর পৌঁছেছে দিল্লিতেও৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও টুইট করেছেন৷ ঘটনাকে ‘দুর্ভাগ্যজনক’ বলে চিহ্নিত করে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন৷ আহতদের দ্রুত সুস্থ হওয়ার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং