২৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংযুক্তিকরণের প্রতিবাদে আজ দেশজুড়ে ৩টি কর্মী সংগঠনের ডাকে ব্যাংক ধর্মঘট। তবে রিজার্ভ ব্যাংক ও স্টেট ব্যাংকের কর্মীরা এই ধর্মঘটে অংশ নিচ্ছে না। তাই গ্রাহক স্বার্থে নিজেদের পরিষেবা চালু রাখার আশ্বাস দিয়েছেন কর্তারা। চালু থাকার কথা গ্রামীণ ও সমবায় ব্যাংকগুলিও। তবে এটিএম পরিষেবা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা থাকছে।
ইন্ডিয়া ব্যাংক এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশন, ব্যাংক এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া, অল ইন্ডিয়া ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেস – এই তিন সংগঠন মিলে আজ, মঙ্গলবার একযোগে ব্যাংক ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। সপ্তাহের কাজের দিনে এই ধর্মঘটের জেরে বেশ সমস্যায় পড়ছেন সাধারণ গ্রাহকরা। গুটি কয়েক ব্যাংক পরিষেবা চালু রাখলেও, গ্রাহকের চাপের তুলনায় তা অনেকটাই কম।

[আরও পড়ুন: কী বলছে মহারাষ্ট্র-হরিয়ানার বুথ ফেরত সমীক্ষা? দেখে নিন একনজরে]

ক্রমশ দুর্বল হতে থাকা জাতীয় অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে দেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থায় বড়সড় পরিবর্তন করেছে অর্থমন্ত্রক। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ ১০টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংককে সংযুক্তিকরণের মাধ্যমে ৪টি ব্যাংক তৈরির কথা ঘোষণা করেছেন। এর জেরে আলাদাভাবে আর থাকছে না ওরিয়েন্টাল ব্যাংক অফ কমার্স, ইউনাইটেড ব্যাংক, এলাহাবাদ ব্যাংক, ইন্ডিয়ান ব্যাংক। মিশে যাচ্ছে কানাড়া ব্যাংক, সিন্ডিকেট ব্যাংক এবং ইউনিয়ন ব্যাংক, অন্ধ্র ব্যাংকও। ফলে কর্মী ছাঁটাইও হবে। তাই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর এই ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই প্রবল প্রতিবাদে নেমে পড়েছে ব্যাংকের কর্মী সংগঠনগুলি। তবে শুধু সংযুক্তিকরণের প্রতিবাদই নয়। আজকের ধর্মঘটে অনাদায়ী ঋণ আদায়, ব্যাংকিং পরিকাঠামোর পুনর্বিন্যাসের ফাঁকফোকরগুলি নিয়েও সরব হচ্ছেন তাঁরা।
যে সংগঠনগুলি ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে, দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক এসবিআইয়ের হাতে গোনা কর্মী সেসব সংগঠনের সদস্য। তাই স্টেট ব্যাংক কর্তৃপক্ষের আশা, ধর্মঘটের বিশেষ প্রভাব তাদের পরিষেবায় পড়বে না। এছাড়া গ্রামীণ ও সমবায় ব্যাংকগুলিকে এই ধর্মঘটের আওতার বাইরে রাখা হয়েছে। তাই গ্রামীণ এলাকায় আজকের ধর্মঘটের কোনও প্রভাব পড়বে না বলেই মনে করা হচ্ছে। সবচেয়ে সমস্যায় শহরাঞ্চলের গ্রাহকরা।

[আরও পড়ুন: ডাইনিই মেয়েকে খেয়েছে! রক্তশূন্য শিশুকন্যার দেহ উদ্ধারের পর আতঙ্কে গোটা গ্রাম]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং