৫ মাঘ  ১৪২৫  রবিবার ২০ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে অটোচালকদের দৌরাত্ম্য। বেশি ভাড়া আদায় করা, যাত্রীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার, ঘাটতি নেই অভিযোগের। তবে সবেতেই ব্যতিক্রম থাকে। এবং ব্যতিক্রমীদেরই মাশুল গুনতে হয়।এবার যাত্রীদের থেকে ‘সঠিক ভাড়া’ আদায় করার জন্য খুন হতে হল এক অটোচালককে। 

[অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত বাধ্যতামূলক হচ্ছে হিন্দি শিক্ষা! তুঙ্গে জল্পনা]

ঘটনাটি বেঙ্গালুরু থেকে প্রায় ১৪ কিলোমিটার দূরের য়েমালুর গ্রামের। মৃত অটোচালকের নাম নরায়ণ ওয়াই এম। বয়স ৬৭।আয়কর বিভাগে চাকরি করতেন তিনি। অবসর নেওয়ার পর য়েমালুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় অটো চালানোর কাজ শুরু করেন নারায়ণ। পুলিশ সূত্রে খবর, সবসময় সঠিক ভাড়া আদায় করতেন তিনি। যাত্রীদের সঙ্গে তাঁর ব্যবহার অত্যন্ত বন্ধুত্বপূর্ণ ছিল।ফলে এলাকায় সবারই প্রিয়পাত্র হয়ে ওঠেন নরায়ণ। ওই রুটে সবার আগে তাঁর অটোর খোঁজ করত যাত্রীরা। অভিযোগ, স্ট্যান্ডে থাকা একাধিক অটোচালক সুযোগ পেলেই যাত্রীদের থেকে ভাড়া বেশি আদায় করতেন। বহুবার এ নিয়ে অশান্তিও বাধে।নারায়ণের প্রসার বাড়ায় স্বাভাবিকভাবেই অন্য চালকরা তাঁর উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। তাঁদের অভিযোগ, কম ভার নিয়ে ব্যবসার ক্ষতি করছেন তিনি। বুধবার এমনই এক বচসার জেরে নারায়ণের উপর হামলা চালায় বাবু নামের আরেক অটোচালক।লাগাতার মার খেয়ে অচৈতন্য হয়ে পড়েন নরায়ণ। এলাকার মানুষ তাঁকে উদ্ধার করে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে গেলেও মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। 

ইতিমধ্যে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে হত্যার মামলা রুজু করা হয়েছে। মৃতের কন্যা প্রেম জানিয়েছেন, চাকরি থেকে অবসর নেওয়ার পর বাড়িতেই বসে থাকতেন নারায়ণ। তবে বেশিদিন কাজ ছেড়ে থাকতে পারেননি তিনি। তাই ওই ওই রুটে অটো চালানোর কাজ শুরু করেন তিনি। তবে নিজের কাজে সৎ থাকায় তাঁকে যে এহেন মূল্য দিতে হবে তা জানতেন না তিনি।            

                       [উদ্বেগে ভারত, চিনের দয়ায় পাকিস্তানের হাতে ব্রহ্মস-এর প্রতিপক্ষ]                                             

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং