BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দিনে ২২ কোটির দান! ২০২০ সালের উদারতম ভারতীয় উইপ্রোর প্রতিষ্ঠাতা আজিম প্রেমজি

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 11, 2020 1:46 pm|    Updated: November 11, 2020 1:46 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সারা বছরে ৭,৯০৪ কোটি টাকা দান করেছেন উইপ্রো (Wipro) সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা এবং চেয়ারম্যান আজিম প্রেমজি (Azim Premji)। ২০২০ সালের সমাজসেবী ভারতীয়দের তালিকায় তিনিই শীর্ষে। দিনপিছু তাঁর দানের মূল্য ২২ কোটি টাকা!

এডেলগিভ হিউরান ইন্ডিয়া সংস্থা প্রকাশ করেছে ভারতীয় সমাজসেবীদের এই তালিকা। সেই তালিকা থেকে জানা যাচ্ছে, কোভিড মোকাবিলার জন্য গত ১ এপ্রিল ১,১২৫ কোটি টাকা দানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে আজিম প্রেমজি ফাউন্ডেশন, উইপ্রো এবং উইপ্রো এন্টারপ্রাইজেস। এর সঙ্গে রয়েছে উইপ্রোর বার্ষিক সিএসআর এবং আজিম প্রেমজি ফাউন্ডেশনের নিয়মিত সমাজসেবামূলক কর্মে আর্থিক দানও। “ভারতীয় হিতৈষীদের কাছে আজিম প্রেমজি একজন আদর্শ ব্যক্তিত্ব। অন্যান্য ব্যবসায়ীদের তিনি সমাজসেবার কাজে অনুপ্রাণিত করছেন,” বলেছেন হিউরান ইন্ডিয়ার ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং মুখ্য গবেষক, আনাস রহমান জুনায়েদ।

[আরও পড়ুন: বিহারের প্রতিষ্ঠান বিরোধিতাকে ছাপিয়ে গেল মোদি ম্যাজিক! ফ্যাক্টর মহিলা ভোটাররা]

আজিম প্রেমজির ছেলে রিশদ প্রেমজি একটি টুইটে এই সংবাদ শেয়ার করে লেখেন, ‘‘আমার বাবা সব সময় বিশ্বাস করে এসেছেন তিনি তাঁর সম্পদের তত্ত্বাবধায়ক মাত্র, মালিক নন। যে সমাজে আমদের বাস ও কাজকর্ম, তা উইপ্রোরই একটি মুখ্য অংশ।’’

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন এইচসিএল টেকনোজলিস সংস্থার শিব নাদার। সমাজসেবার কাজে তিনি ৭৯৫ কোটি টাকা দান করেছেন। এশিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি, রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani) রয়েছেন তিন নম্বরে। তিনি দান করেছেন ৪৫৮ কোটি টাকা। হিউরান ইন্ডিয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী, কোভিড মোকাবিলায় গত ৩০ মার্চ ‘পিএম কেয়ার্স’ ফান্ডে ৫০০ কোটি টাকা দানের ঘোষণা করেন মুকেশ। এ ছাড়া গুজরাট ও মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে পাঁচ কোটি টাকা করে দান করেন তিনি। চতুর্থ স্থানে কুমার মঙ্গলম বিড়লা (২৭৬ কোটি)। পাঁচ নম্বরে ‘বেদান্ত’ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা এবং চেয়ারম্যান, অনিল আগরওয়াল। অনিল ও তাঁর পরিবার ২১৫ কোটি টাকা দান করেছেন। ২০১৪ সালে অনিল বলেছিলেন, আয়ের ৭৫ শতাংশ তিনি সমাজসেবায় দান করবেন।

[আরও পড়ুন: জাতপাত ভুলে কংগ্রেসকে বেশি আসন ছাড়াই কাল, লড়াই দিয়েও পারলেন না তেজস্বী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement