BREAKING NEWS

৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

পাকিস্তান নয়, ভারতে দেদার জাল ২০০০ টাকার নোট ঢুকছে বাংলাদেশ থেকে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 12, 2017 3:19 am|    Updated: September 12, 2017 3:29 am

Bangladesh surpasses Pakistan in injecting fake currency in India

ছবি: প্রতীকী।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আশ্বাস দিয়েছিলেন, নোট বাতিলের ফলে জাল নোটের চক্র ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া যাবে৷ কারণ, পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার জাল নোটে একসময় ভরে উঠেছিল ভারতীয় বাজার৷ পাকিস্তান থেকে সেই সব জাল নোট অসাধু উপায়ে সীমান্ত পেরিয়ে এ দেশের প্রান্তিক রাজ্যেগুলিতে ছড়িয়ে যাচ্ছিল৷

[অযোধ্যায় এবার রামলীলা পরিবেশন করবেন মুসলিম শিল্পীরা]

গতবছরের ৮ নভেম্বর ঢাক ঢোল পিটিয়ে প্রধানমন্ত্রী পুরনো নোট বাতিল করে দিলেন রাতারাতি৷ কিন্তু তাতে জাল নোটের রমরমা বন্ধ হল কি? উত্তরটা খুঁজে পেতে বিশেষ পরিশ্রম করতে হবে না৷ কারণ, বিএসএফ-এরই একটি সূত্র জানাচ্ছে, দেদার জাল ২০০০ টাকার নোট ভারতে ঢুকছে৷ তবে চমকে দেওয়ার মতো তথ্য হল, পাকিস্তান নয়, এইসব জাল ভারতীয় নোট ভারতে অবাধে ঢুকছে বাংলাদেশ থেকে৷

বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে ছাপানো নকল নোট অন্তত ১৩টি পথে ভারতে ঢোকে৷ জম্মু, পাঞ্জাব, রাজস্থান, গুজরাট, এই রাজ্য, অসম ও মেঘালয় হয়ে এই সব নকল বড় নোট ভারতে ছড়িয়ে যায়৷ কিন্তু গত ৮ নভেম্বর নোট বাতিলের পর অসম ও পশ্চিমবঙ্গ ছাড়া অন্যান্য পথগুলি দিয়ে জাল নোট ভারতে ঢোকা প্রায় বন্ধের মুখে৷ কিন্তু অসম ও পশ্চিমবঙ্গে আচমকাই যেন জাল নোটের ব্যবসা মারাত্মক হারে বেড়ে গিয়েছে৷ ২০১৭-র প্রথম ছ’মাসেই অন্তত ৩২ লক্ষ টাকার জাল নোট উদ্ধার করে বিএসএফ৷ ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট বলছে, নকল নোটের কারবারিরা খুব বড় কোনও বিনিয়োগ করেছে এমনটা নয় কিন্তু৷ জাল নোটের পুরনো চক্রই কিছুদিন চুপচাপ থাকার পর ফের গা ঝাড়া দিয়ে উঠেছে৷ জম্মু বা পাঞ্জাব হয়ে পাকিস্তান থেকে জাল নোট ভারতে ঢুকত৷ কিন্তু এখন বাংলাদেশের FICN বা ‘ফেক ইন্ডিয়ান কারেন্সি নোট’ ভারতে হু হু করে ঢুকছে৷

[প্রধান বিচারপতির গাড়িতে সওয়ার ধর্মগুরু রবিশংকর, বিতর্ক তুঙ্গে]

ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট আরও বলছে, ভারতে নতুন ২ হাজার টাকার নোট ছাপাতে যে কাগজ ব্যবহার করা হয়, প্রায় একইরকম কাগজ সৌদি আরব বা মালয়েশিয়া থেকে আনাচ্ছে দুষ্কৃতীরা৷ এই ‘অভিনব’ উদ্যোগের পিছনে রয়েছে বাংলাদেশের কিছু জাল নোট চক্রের চাঁই৷ বর্ষার মরসুমে দক্ষিণবঙ্গ ও গুয়াহাটি ফ্রন্টিয়ার হয়ে ভারতে ব্যাপক জাল নোট ঢুকছে, আশঙ্কা কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের৷ এবছরের জানুয়ারি মাসেই ১ লক্ষ, ফেব্রুয়ারিতে ২.৯৬ লক্ষ, মার্চে সাড়ে চার লক্ষ ও এপ্রিলে এক ধাক্কায় ২০ লক্ষ টাকার জাল নোট ভারতে ঢুকেছে৷ গত ২২ আগস্ট মালদহে শুধু একটি অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকার জাল নোট উদ্ধার করে বিএসএফ৷ তবে সেনাকর্তারা জানাচ্ছেন, আশার খবর এই যে এখন যে সব জাল নোট ছাপানো হচ্ছে সেগুলির মান অত্যন্ত খারাপ৷ মূলত অফসেট প্রিন্টিংয়ে কাজ সারা হচ্ছে৷ এর আগে পাকিস্তান যে উচ্চ প্রযুক্তিসম্পন্ন মেশিন ব্যবহার করত, সেগুলি এখন অচল হয়ে গিয়েছে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে