৮ ফাল্গুন  ১৪২৬  শুক্রবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পেশাগত দায়বদ্ধতা নাকি স্রেফ টাকার লোভ। যে কারণেই হোক, নির্ভয়ার ধর্ষক পবন গুপ্তকে বাঁচাতে আদালতে জাল নথি পেশ করেছিলেন আইনজীবী এপি সিং (A P Singh)। যার জেরে এবার শাস্তির মুখে পড়তে হচ্ছে এপি সিংকে। তাঁকে ইতিমধ্যেই নোটিস পাঠিয়েছে দিল্লির বার কাউন্সিল। জানতে চাওয়া হয়েছে, কেন আদালতে জাল নথি পেশ করলেন তিনি? আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যে ওই নোটিসের জবাব দিতে হবে পবন কুমার গুপ্তর আইনজীবীকে।

[আরও পড়ুন: বিজেপিকে সমর্থন না করার জেরেই বোর্ডের চুক্তি থেকে বাদ ধোনি! বিস্ফোরক কংগ্রেস নেতা]

নির্ভয়ার ধর্ষণে অভিযুক্ত এক নাবালক ইতিমধ্যেই ছাড়া পেয়ে গিয়েছে। আরেক অভিযুক্ত পবন কুমার গুপ্তও গতবছর ১৯ ডিসেম্বর দিল্লি হাই কোর্টে দাবি করে ওই ঘটনার সময় সে নাবালক ছিল। আদালত তাঁকে প্রমাণ পেশ করার নির্দেশ দেয়। এরপর আদালতে পবনের হয়ে তার নাবালকত্বের প্রমাণ হিসেবে নথি পেশ করে পবন। কিন্তু, আদালত সেই নথি জাল বলে খারিজ করে দেয়। ১৯ ডিসেম্বর শুনানির দিন সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ আদালতে গিয়ে পবনের হয়ে নথি পেশ করে আসেন এপি সিং। তারপরই আদালত চত্বর থেকে উধাও হয়ে যান তিনি। শুনানির সময় জাল নথি পেশের অভিযোগে পবনের আইনজীবী এপি সিংকে তলব করে আদালত। কিন্তু, তখন আর তিনি হাজির হননি। তাঁকে বিচারপতি ব্যক্তিগত স্তরে ফোন করেন। মেসেজ এবং ইমেলও করা হয়। তাতেও হাজির হননি এপি সিং। ক্ষুব্ধ আদালত তাঁকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে। বিষয়টি নিয়ে বার কাউন্সিলকে পদক্ষেপ করতে অনুরোধ করা হয়।

Nirbhaya

সেই অনুরোধের ভিত্তিতে বার কাউন্সিল এপি সিংয়ের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে। সম্প্রতি সর্বসম্মতিক্রমে বিষয়টি নিয়ে একমত হয়েছেন দিল্লি বার কাউন্সিলের সদস্যরা। এবং আইনজীবী এপি সিংকে নোটিস পাঠানো হয়েছে। দু’সপ্তাহের মধ্যে জবাব দিতে হবে তাতে। জবাবে সন্তুষ্ট না হলে, এপি সিংকে কঠিন শাস্তির মুখে পড়তে হবে। উল্লেখ্য, জাল নথি সংক্রান্ত ওই আবেদনটি দিল্লি হাই কোর্ট খারিজ করলেও পবন সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছে। সোমবার সেই মামলার শুনানি। ১ ফেব্রুয়ারি ফাঁসির আগে নিজেকে বাঁচানোর এটাই শেষ সুযোগ পবনের কাছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং