২৬ বৈশাখ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

উপনির্বাচনে বড় ধাক্কা বিজেপির, উত্তরপ্রদেশে ও বিহারে জোটের কাছে হার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 14, 2018 5:43 pm|    Updated: September 2, 2019 3:52 pm

Big blow to BJP, SP wrests Gorakhpur, Fulpur seats

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গেরুয়া আকাশে প্রবল অশনি সংকেত। উপনির্বাচনে হিন্দি বলয়ে বিরোধী জোটের কাছে জোর ধাক্কা খেল বিজেপি। হিন্দুত্বের অন্যতম ‘আইকন’ যোগী আদিত্যনাথের নিজের গড় গোরক্ষপুরেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে বিজেপির উপেন্দ্র দত্ত শুক্লকে হারিয়ে জয়ী সপা প্রার্থী প্রবীণ কুমার। গেরুয়া শিবিরে দুঃসংবাদ এসেছে ফুলপুর কেন্দ্র থেকেও। ফুলপুর তথা উপ-মুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্যের কেন্দ্রে বিজেপির কৌশলেন্দ্র সিং প্যাটেলকে পিছনে ফেলে ৫৯ হাজারেরও বেশি ভোটে জয়ী সমাজবাদী দলের প্রার্থী নগেন্দ্র প্রতাপ সিং প্যাটেল।

[নজির বায়ুসেনার, অরুণাচলে নামল সি-১৭ গ্লোবমাস্টার]

বিহারে নীতীশ কুমারের সঙ্গে জোট বেঁধে ভোটে নেমেছিলেন বিজেপি নেতারা। কিন্তু সেখানেও উপনির্বাচনে আরারিয়া লোকসভা কেন্দ্র এবং জেহানাবাদ বিধানসভা কেন্দ্রে পরাজিত পদ্ম শিবির। আরজেডি-র কুমার মিশ্র মোহন জেহানাবাদ আসনে জয়ী হয়েছেন। একইসঙ্গে চার কেন্দ্রেই নামমাত্র ভোট পেয়ে কংগ্রেস কার্যত অপ্রাসঙ্গিক হয়ে গিয়েছে। বিরোধী ভোট একবাক্সে পড়লে বিজেপির জেতা যে সত্যি কঠিন, তা এই উপনির্বাচনে খোদ গোবলয়ে প্রমাণ হয়ে গেল। দুপুরেই আরজেডির লালুপ্রসাদ যাদবকে উপনির্বাচনে বিজেপিকে হারিয়ে জয়ী হওয়ার জন্য টুইট করে অভিনন্দন জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিহারে জিতে উঠে তেজস্বী যাদবের হুংকার, ‘যাঁরা বলছিলেন যে বিহারে লালু-জমানা শেষ হয়ে গিয়েছে, আজ তাঁদের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে বলতে চাই, লালু প্রসাদ একটি ধারার নাম। তাঁকে কেউ শেষ করতে পারবে না।’ আজ গোটা দেশের চোখ ছিল উত্তরপ্রদেশের যোগীর গড় গোরক্ষপুর এবং ফুলপুরে। টেনশনে ছিলেন নয়াদিল্লিতে গেরুয়া শিবিরের হেডকোয়ার্টারের শীর্ষনেতারাও। এই ফলাফলকে মানুষের রায় বলে মেনে নিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচনের পুরো উলটো ছবি উত্তরপ্রদেশ ও বিহার উপনির্বাচনে। ভোটগণনা শুরু হতেই আশঙ্কার কালো মেঘ ছড়িয়ে পড়ে উত্তরপ্রদেশ ও বিহারে, কারণ দুই রাজ্যেই শাসক দল বিজেপি। বিজেপির মুখরক্ষা হয়েছে কেবল ভাবুয়া কেন্দ্রে। সেখানে বিজেপি প্রার্থী রিংকি রানি পাণ্ডে কংগ্রেসের শম্ভু সিং প্যাটেলকে হারিয়ে জয়ী হয়েছেন। কেন এই ফলাফল হল তা বিশ্লেষণ করে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন কেপি মৌর্য। বিজেপি-বিরোধী সব রাজনৈতিক দলগুলি একজোট হলেও কীভাবে ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচন জেতা যায়, তা নিয়ে স্ট্র্যাটেজি তৈরির উপরও জোর দিয়েছেন তিনি।

উত্তরপ্রদেশে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের খাস তালুক গোরক্ষপুরে সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজবাদী পার্টির জোটের ধাক্কায় বেসামাল গেরুয়া শিবির। ফুলপুরেও হারল বিজেপি। অক্সিজেন পেয়ে রাজ্যে শক্তি জমি দখলের ভিত পোক্ত করছে অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টি। স্বস্তির নিশ্বাস বসপা শিবিরেও। রাজধানী লখনউয়ের অলিন্দে শুরু হয়ে গিয়েছে বিরোধী জোটের উৎসব। এদিকে একই ছবি বিহারেও। বিহারের আরারিয়া লোকসভা কেন্দ্র ও জেহানাবাদ বিধানসভাতে জয়ী বিরোধীরা। বিজেপি অধ্যুষিত গো-বলয়ে বিজেপি পর্যুদস্ত অবস্থায় চনমনে বিরোধী দলগুলিকে। উপ-নির্বাচনের ফলাফলের ধাক্কা তাই ২০১৯-এ আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির পথ নির্মাণের ক্ষেত্রে কি বড়সড় অশনি সংকেত? ধন্দে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে