BREAKING NEWS

৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ২৩ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিহারে পরিবর্তনের ইঙ্গিত! মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসতে পারেন লালুপুত্র তেজস্বী

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 7, 2020 7:54 pm|    Updated: November 7, 2020 8:21 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিহারে তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার পরেই বুথফেরত সমীক্ষায় পরিবর্তনের ইঙ্গিত পাওয়া গেল। বিভিন্ন সংস্থার করা সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি ও জেডি (ইউ) -এর এনডিএ জোটের বদলে ক্ষমতা আসতে চলেছে কংগ্রেস ও আরজেডির মহাজোট। সরকার গঠনের জন্য দরকারি ১২২টি আসন তারা পাবে বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে আগামী ১০ নভেম্বর ফলাফল প্রকাশের পরেই এই বিষয়টি সত্যি কিনা জানা যাবে।

শনিবার নির্বাচন শেষ হওয়ার পর জানা গিয়েছে, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পেলেও তার ভয়কে উপেক্ষা করে ৭ কোটি মানুষ তিন দফার এই নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন। নীতীশ কুমারের জেডি (ইউ) ও বিজেপির এনডিএ (NDA) জোট এবং কংগ্রেস ও রাষ্ট্রীয় জনতা দলের মহাগঠবন্ধনের প্রার্থীদের মধ্যে ২৪৩ জনকে বেছে নিয়েছেন। তার মধ্যে টাইমস নাউ-সি ভোটারের সমীক্ষায় প্রকাশিত হয়েছে এনডিএ জোট পেতে পারে ৯১-১১৭টি আসন আর মহাগঠবন্ধন (Mahagathbandhan) পেতে পারে ১১৮-১৩৮ আসন।

[আরও পড়ুন: ‘ভারতে লাভ জেহাদ ছড়াতে টাকা দিচ্ছে আরবের দেশগুলি’, বিতর্কিত মন্তব্য সাধ্বী প্রাচীর]

অন্যদিকে রিপাবলিক-জন কী বাতের সমীক্ষা থেকে জানা গিয়েছে, বিহারে একক রাজনৈতিক দল হিসেবে সবথেকে বেশি আসন জিততে চলেছে রাষ্ট্রীয় জনতা দল। আর ২৪৩টি আসনের মধ্যে মহাগঠবন্ধন ১১৮-১৩৮টি, এনডিএ ৯১-১১৭টি, এলজেপি ৫-৮ এবং অন্যেরা ৩-৬টি কেন্দ্রে জিততে পারে। আর এবিপি-সি ভোটারের সমীক্ষা অনুযায়ী, এনডিএ ১০৪ থেকে ১২৮টি আসন পেতে পারে আর মহাগঠবন্ধন পেতে পারে ১০৮ থেকে ১৩১টি আসন। এছাড়া প্রয়াত রামবিলাস পাসোয়ানের দল এলজিপি ১-৩ এবং নির্দল-সহ অন্যরা ৪ থেকে আটটি।

বিভিন্ন সংস্থার করা এই সমীক্ষা কতটা সত্যি হবে তা নিয়ে জল্পনা চলছে। এর মাঝেই রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিষয়টি সত্যি হলে ১৫ বছর পর মুখ্যমন্ত্রীর আসনে ছাড়তে হবে নীতীশ কুমারকে।

[আরও পড়ুন: মেয়াদ শেষের আগেই দুর্নীতিগ্রস্ত পঞ্চায়েত সদস্যদের সরাতে পারবে গ্রামবাসীরা! আইন হরিয়ানায়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement