২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দুই রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে ৩৭০ ধারাকেই হাতিয়ার করতে চলেছে বিজেপি। অন্তত এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। ইতিমধ্যেই ২ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা করে দিয়েছে কমিশন। আগামী ২১ অক্টোবর ভোট মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানায়। সম্প্রতি শেষ হওয়া লোকসভা নির্বাচনে দুই রাজ্যেই গেরুয়া ঝড় উঠেছিল। মনে করা হচ্ছে, এবারেও তেমনই হতে চলেছে। ইতিমধ্যেই কয়েকটি জনমত সমীক্ষা সেদিকে ইঙ্গিত করেছে। বিজেপির এই আধিপত্য আরও মজবুত করতে চলেছে কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা বিলোপের সিদ্ধান্ত।

[আরও পড়ুন: চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে আনা হল না ধর্ষণের অভিযোগ, চরম হতাশ নির্যাতিতা ছাত্রী]

সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির মূল হাতিয়ার ছিল পুলওয়ামা হামলা এবং বালাকোট এয়ার স্ট্রাইক। মোট কথা, জাতীয়তাবাদের উপর ভর করে লোকসভার পরীক্ষায় উতরে গিয়েছে গেরুয়া শিবির। শুধু উতরে গিয়েছে বলা ভুল হবে, রীতিমতো লেটার মার্কস নিয়ে পাশ করেছেন মোদি-শাহরা। লোকসভা নির্বাচনে অবশ্য পুলওয়ামা এবং বালাকোট এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল নির্বাচন কমিশন। জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, সেনার কৃতিত্বকে কোনওভাবেই ভোটের প্রচারে ব্যবহার করা যাবে না। কিন্তু, সেসব নিষেধাজ্ঞা উড়িয়েই মোদি-শাহরা দেদার প্রচার করেন বালাকোট এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে।

[আরও পড়ুন: পাঞ্জাব থেকে কাশ্মীরে অস্ত্রপাচার, দক্ষিণ কাশ্মীরে গ্রেপ্তার ২ জইশ জঙ্গি]

শনিবার কমিশনের সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, ৩৭০ ধারা নিয়ে প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে কিনা। এ প্রসঙ্গে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার জানিয়ে দিয়েছেন, “৩৭০ ধারা রদ সংসদে নেওয়া সিদ্ধান্ত। এই সিদ্ধান্তকে কেবল সুপ্রিম কোর্টে চ্যালেঞ্জ করা যাবে।” বিরোধীরা মনে করছেন, মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক বস্তুত বুঝিয়েই দিয়েছেন, বিজেপি চাইলে ৩৭০ ধারা বিলোপ নিয়ে প্রচার করতেই পারে। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্রের একটি জনসভায় ৩৭০ নিয়ে বলতে শোনা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে। বিজেপি সভাপতি অমিত শাহও বারবার ভোটের প্রচারে ৩৭০ ধারা নিয়ে সরব হয়েছেন। স্বাভাবিকভাবে বোঝাই যাচ্ছে, মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানার নির্বাচনে বিজেপির মূল হাতিয়ারই হতে চলেছে ৩৭০ ধারা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং